ঢাকা,সোমবার, ১ মার্চ ২০২১

মিছিল-সমাবেশে যুবলীগকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে -এমপি জাফর আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি চকরিয়া আসছেন আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী। এদিন তিনি ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’ উদ্বোধন এবং চকরিয়া সরকারী কলেজ মাঠে বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন। তাঁর আগমণ উপলক্ষে স্থানীয় আওয়ামী লীগের পাশাপাশি অঙ্গ সংগঠন বাংলাদেশ যুবলীগ চকরিয়া উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারী) জরুরী বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে পৌরশহরের সিস্টেম চকরিয়া কমপ্লেক্সের ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণারের’ হলরুমে।

যুবলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য এবং চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ।

শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত এই বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহীদ। সঞ্চালনা করেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দীন জয়নাল, পৌরসভা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ওয়ালিদ মিল্টন ও আমান উদ্দীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আবু মুছা, পৌর আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. আসাদুল হক।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম বলেন, ‘যুবলীগ হচ্ছে আওয়ামী লীগের মূল চালিকা শক্তি। যে কোন আন্দোলন-সংগ্রাম, মিছিল-সমাবেশ সফল করতে যুবলীগকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। একইভাবে আগামী ২৮ তারিখের চকরিয়া কলেজ মাঠের জনসভাও সফল করার ক্ষেত্রে যুবলীগের অগ্রণী ভূমিকা দেখতে চাই।’

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন-উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি কাউন্সিলর মুজিবুল হক, মহিদুল ইসলাম, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মামুনুল করিম, মো. রাসেল, শফিউল আজম, সাংগঠনিক সম্পাদক অহিদুজ্জামান অহিদ, রেফায়েত সিকদার, তারেকুল ইসলাম চৌধুরী, ফরহাদ হোসেন পার্কেল, অর্থ সম্পাদক আজিজুল হক, দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজন, উপ-দপ্তর মুজিবুল হক, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ আনোয়ারুল ইসলাম আনু, শিক্ষা ও পাঠচক্রবিষয়ক সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম মিঠু, বন ও পরিবেশ সম্পাদক সালাহ্ উদ্দীন, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক মাহামুদুল হক তফসির, সহ-সম্পাদক জয়নাল হাজারী, তৌহিদুল ইসলাম, মো. শফি, মো. আলমগীর, শহিদুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী হাসানুল ইসলাম আদর, সুজন দেব নাথ, ডুলাহাজারা যুবলীগের আহব্বায়ক তৌহিদুল ইসলাম, যুগ্ন আহব্বায়ক আমান উল্লাহ, আব্দু রশিদ হায়দার, কাইছার বাবুল, আব্দুল আজিজ, জামাল উদ্দীন হাদী, খুটাখালী যুবলীগের ওয়াসিম, আরাফাত রানা, মিজান, ফাঁসিয়াখালী সভাপতি নাজমুল হাসান লিটন, সম্পাদক নাঈমুল সিকদার, মো. বাবুল, চিরিংগা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল, তৌহিদ, এরশাদ, মো. রিফাত, সুরাজপুর-মানিকপুর আহব্বায়ক ফেরদৌস আলম, লক্ষ্যারচরের সভাপতি সরওয়ার আলম, কাকারার যুগ্ন আহব্বায়ক মিনারুল ইসলাম, মো. রাজিব, রমিজ, কৈয়ারবিলের যুগ্ন আহব্বায়ক নুরুল মোস্তফা, মো. রুবেল, কৈলাস দে, হারবাং যুবলীগের সভাপতি জাহেদুল আলম লিটন, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, জয়নাল, পারভেজ, বরইতলী যুবলীগের যুগ্ন আহব্বায়ক কামরুল ইসলাম, সাহাবউদ্দীন, মো. কাইছারসহ য্বুলীগ-ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। ##

 

পাঠকের মতামত: