ঢাকা,বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১

চকরিয়ার কৈয়ারবিলে দুই প্রবাসির বসতঘরের দরজা ভেঙে দুর্ধুর্ষ ডাকাতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া :: কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নে দুই সৌদি প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ১৪-১৫ জনের সশস্ত্র মুখোশ পরিহিত ডাকাত দল দ্বিতলা বাড়ির উপরে উঠে বাড়ির দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকার পর প্রথমে পরিবারের লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বেঁধে ফেলে। পরে তারা বাড়ির আলমিরা ভেঙে নগদ ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা, সাড়ে ১৬ ভরি স্বর্ণালংকার, ৩টি মোবাইসেট ও অন্যান্য সরঞ্জামসহ অন্তত ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এ সময় সশস্ত্র ডাকাত দলের বেদড়ক পিটুনীতে প্রবাসী পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্য কমবেশি আহত হয়। রোববার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের খোজাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাড়িতে থাকা দুই প্রবাসীর ভাই ও স্থানীয় আব্দুল মজিদের ছেলে নাসির উদ্দিন বাদি হয়ে সোমবার (১১ জানুয়ারী) চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে ডাকাতির ঘটনার খবর শুনে সোমবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) তফিকুল আলম ও চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের ও কৈয়ারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মক্কী ইকবাল হোসেন।

মামলার বাদি নাসির উদ্দিন বলেন, অন্যান্য দিনের মতো রোববার রাতেও তারা বাড়ির দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আড়াইটার দিকে ১৪-১৫ জনের সশস্ত্র মুখোশ পরিহিত ডাকাতদল বাড়ির দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে রশি দিয়ে বেঁধে বেদড়ক পেটাতে থাকে। পরে ডাকাত দলের সদস্যরা বাড়ির আলমিরা ভেঙে নগদ ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা, সাড়ে ১৬ ভরি স্বর্ণালংকার, ৩টি মোবাইল সেট ও অন্যান্য মালামালসহ অন্তত ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় সশস্ত্র ডাকাত দলের বেদড়ক পিটুনীতে প্রবাসী পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্য কমবেশি আহত হয়।

তিনি আরও বলেন, আমার দুইভাই দীর্ঘদিন ধরে সৌদি প্রবাসী। আমরা সবাই একই ঘরে যৌথ পরিবারে বসবাস করি। ডাকাতির ঘটনার দিনও আমার দুইভাই প্রবাসে অবস্থান করছিলেন। এ দূর্ধষ ডাকাতির ঘটনায় সোমবার চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানান মামলার বাদি নাসির উদ্দিন।

সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) মো.তফিকুল আলম বলেন, কৈয়ারবিল ইউনিয়নে ডাকাতির ঘটনার খবর শুনে সোমবার সকালে আমি ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক নাসির উদ্দিন বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ইতোমধ্যে পুলিশ ডাকাতদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে ।

 

 

পাঠকের মতামত: