ঢাকা,সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

কক্সবাজারে ১৯ মাঝি-মাল্লাসহ ট্রলার নিখোঁজ

কক্সবাজার প্রতিনিধি :: বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ১৯ জন মাঝি-মাল্লাসহ কক্সবাজারের একটি মাছধরা ট্রলার গত ১৯ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে।

এবিষয়ে নিখোঁজ ট্রলার মালিক কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়াছড়ার আলহাজ্ব নজির হোসেন কোম্পানীর ছেলে মোঃ মাসুদ রানা বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) কক্সবাজার সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।
সাধারণ ডায়েরীতে নিখোঁজ ফিশিং ট্রলার এফবি রানার মালিক মাসুদ রানা উল্লেখ করেন, ১৯ মাঝিমাল্লা ও ১০/১২ দিনের রসদ নিয়ে গত ১৫ নভেম্বর শহরের ফিশারীঘাট থেকে তার ট্রলারটি সাগরে রওয়ানা দেয়।
কিন্তু ১৯ দিন পরও ট্রলার ও মাঝিমাল্লাদের কোন খোঁজ মিলছে না। ওই ট্রলারের মাঝি লক্ষীপুর জেলার আলেকজান্ডার থানার সবুজপাড়ার মনজুর আলম প্রকাশ মনজুর মাঝিসহ ট্রলারের অন্যান্য জেলেদের মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ফলে ট্রলার মালিক ও মাঝিমাল্লাদের পরিবার অজানা আশংকায় ভুগছে।

১৯ মাঝিমাল্লা নিয়ে কক্সবাজারের একটি ট্রলার নিখোঁজের বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী লিপিবদ্ধ করা হয়েছে জানিয়ে কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মুনীরুল গীয়াস বলেন, ঘটনার ব্যাপারে কোস্টগার্ডের সহায়তা নেয়ার জন্য ট্রলার মালিককে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
কক্সবাজার জেলা ফিশিং বোট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার মোস্তাক আহমদ বলেন, ১৯ মাঝিমাল্লাসহ এফবি রানা নামের একটি বোট নিখোঁজ রয়েছে বলে খবর পেয়েছি। তবে কীভাবে নিখোঁজ হল তা অনুসন্ধান করা দরকার। কারণ প্রায় একমাস ধরে সাগর শান্ত রয়েছে। আবার অনেক সময় জোয়ারের স্রোতে বাংলাদেশ সীমা অতিক্রম করলেও ভিন্ন দেশের বাহিনীর হাতে আটক হতে পারে জেলেরা। বিষয়টি দেখার জন্য আমরা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি।

পাঠকের মতামত: