ঢাকা,সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০

চকরিয়ায় ৬ লাখ মানুষের সম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিতে সজাগ থাকতে হবে -ইউএনও 

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :: “প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা প্রস্তুতি দুর্যোগ মোকাবেলায় আনবে গতি” স্লোগানে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) থেকে শুরু হয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ -২০২০। এদিন সকালে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার মোঃ আবুল মনসুর চৌধুরী। এছাড়াও অনুষ্ঠানে স্টেশনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ-২০২০ এর উদ্বোধক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, চকরিয়া উপজেলা একটি জনবহুল উপজেলা। এখানে ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকায় সাড়ে ৬ লাখ মানুষের বসবাস। প্রতিটি এলাকায় আছে জনবহুল স্টেশন, বাণিজ্যিক স্থাপনা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে হাজারো জনগনের বসতি।

গুরুত্বপুর্ণ উপজেলা হিসেবে চকরিয়ার প্রত্যেক জনপদে জনগনের যানমাল ও সম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের জন্য কঠিন কাজ। সরকারি অফিস কার্যক্রমের আওতায় কঠিন কাজ হলেও অগ্নিকাণ্ডের দুর্যোগ থেকে উপজেলার সর্বস্থরের মানুষের যানমাল এবং সম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিতকল্পে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদেরকে দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখতে হবে।

তিনি বলেন, অর্পিত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। যে কোন মুর্হুতে খবর পাওয়া মাত্র অগ্নিকা-ের ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে হবে। আশাকরি চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস বিভাগের কর্মীরা অতীতের মতো সামনের দিনগুলোতেও কর্মদক্ষতার মাধ্যমে বিচক্ষনতার পরিচয় দেবে।

অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুল তাবরীজ ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র ও তাদের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। তারআগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অভিবাদন জানান ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষিত বাহিনীর সদস্যরা।

পাঠকের মতামত: