ঢাকা,শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০

সাতকানিয়া পৌরসভার নির্বাচন প্রচারণায় আ. লীগের ৪ সম্ভাব্য প্রার্থী

সাতকানিয়া প্রতিনিধি :: সাতকানিয়া পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলরদের মেয়াদ শেষ হতে বাকি আরও চারমাস। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেই ২০১৫ সালে নির্বাচিত এ পরিষদের মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে। নির্বাচন বা দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহের কোন ঘোষণা না আসলেও এরই মধ্যে প্রার্থী হতে নড়েচড়ে বসেছেন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। পোস্টার-ব্যানার-বিলবোর্ডের পাশাপাশি দলীয় সভা-সমাবেশে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন তারা।

দলের পাশাপাশি ভোটারদের কাছে টানতে আয়োজন করছেন উঠান বৈঠকের। নিয়মিত অংশ নিচ্ছেন সামাজিক অনুষ্ঠানে। নেতাকর্মীরা স্ব স্ব পছন্দের প্রার্থীদের হয়ে চাঙ্গা রেখেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও। নিয়মিত দৌঁড়ঝাপ করছেন দলের শীর্ষ নেতাদের কাছে।

এবার আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নে আগ্রহী চারজন হলেন দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট জহির উদ্দীন, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার, উপজেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি শফিকুল ইসলাম। এদের মধ্যে বর্তমান মেয়র বলেন, ৫ বছরে পৌরসভার উন্নয়নের পাশাপাশি দলের উন্নয়ন বার্তা পৌরবাসীর ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছি।

স্থানীয় জনগণের দাবি-দাওয়া পূরণে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। এসব বিবেচনায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে আমাকে আবারো দলীয় মনোনয়ন দিবে বলে আশা করছি। জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মো. জহির ইতোপূর্বে কোন নির্বাচনে অংশ নেননি। তিনি বলেন, স্কুলজীবন থেকে আমি আওয়ামী রাজনীতির সাথে যুক্ত আছি। আশা করি আমার অবদান দল মূল্যায়ন করবে। মনোনয়ন পেলে পৌরবাসীর আধুনিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতের পাশাপাশি সন্ত্রাস-চাঁদাবাজ-মাদকমুক্ত মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলব ইনশাআল্লাহ।

মনোনয়ন দৌঁড়ে আছেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার। তিনি বলেন, স্কুলজীবন থেকে রাজনীতি শুরু করে নিরবিচ্ছিন্নভাবে দলে সময় দিয়েছি। মনোনয়ন পেলে ঐক্যবদ্ধভাবে আধুনিক পৌরসভা গড়তে লড়ে যাব। জনগণের দাবি-দাওয়া গুরুত্বের সাথে নিয়ে দ্রততার সাথে বাস্তবায়নের চেষ্টা করব।

সাতকানিয়া উপজেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি শফিকুল ইসলামও আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে আগ্রহী। তিনি বলেন, দলীয় মনোনয়ন পেলে জনদুর্ভোগ লাঘব করে সাতকানিয়া পৌরসভাকে একটি আধুনিক পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলব।

এদিকে গত নির্বাচনে মনোনয়ন চাওয়া কেন্দ্রীয় স্বাচিপ নেতা ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য মোহাম্মদ জসিম উদ্দীন, সাবেক মেয়র হাজি মোহাম্মদুর রহমান কেউই এবার প্রার্থী হতে আগ্রহী নন।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুর রহমান চকরিয়া নিউজকে বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে দল থেকে স্বচ্ছ-পরিচ্ছন্ন দুর্নীতিমুক্ত প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হবে। জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগের সুপারিশক্রমে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হবে।

পাঠকের মতামত: