ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট ২০২১

ঈদগাঁও মাইজপাড়া-মেহেরঘোনা সংযোগ সড়কে কাঠের সাঁকো নির্মাণে উৎফুল্ল পথচারীরা

এম আবু হেনা সাগর,  ঈদগাঁও :: গেল ভারী বর্ষণ আর পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যার পানিতে ভেসে যাওয়া  মাইজপাড়া-মেহেরঘোনা সংযোগ সড়কে টেকসই ব্রীজের পরর্বতী পুনরায় কাঠের সাঁকো নির্মান করা হয়েছে। সাঁকো দিয়ে চলাচলরত লোকজন খুশিতে উৎফুল্ল হন।

জানা যায়, ঈদগাঁও ইউনিয়নের মাইজ পাড়া-মেহেরঘোনা নদীর একটি ব্রীজের অভাবে নদীর দু’পাড়ের প্রায় ২০ হাজার মানুষের জীবন যাত্রায় নেমে এসেছে চরম দুর্ভোগ। কবরস্থানে মরদেহ নিয়ে যাওয়া, কৃষিকাজ,ব্যবসা-বাণিজ্য, যাতায়াতসহ নানা কাজে স্থবিরতা নেমে এসেছিল।

এই কাঠের সাঁকোটি পার হয়ে মাইজপাড়াসহ বৃহৎ এলাকার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলের মানুষরা প্রয়োজনে নানান কাজকর্মে চলাফেরা করত। এটি ভেসে যাওয়ায় স্থানীয়দের মরন দশায় ভোগতে হয়েছিল বেশ কিছুদিন ধরে।
দীর্ঘবছরেও পূরণ হয়নি ব্রীজ নির্মাণ দাবী। জনপ্রতিনিধি আশ্বাসের বাণী শোনালেও তা কেবল হাততালির মাঝে সীমাবদ্ব রয়েছে। ফলে ডিজিটারের এই যুগেও উন্নয়ন হয়নি যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ জীবন মানের।

ইউপি সদস্য বজলুর রশিদ এই প্রতিবেদককে জানান, অবশেষে ঈদগাঁও ইউপি পরিষদের পক্ষ থেকে কাঠের সাঁকোটি ঈদুল আযহার ২দিন আগে পুনরায় কাজ শেষ করা হয়। লোকজন চলা চল করলেও যান চলাচল বন্ধ বলে জানায় তিনি।

টেকসই একটি ব্রীজটি নির্মাণ করার প্রতি সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট আহবান।

উল্লেখ্য যে, রিপোর্ট প্রকাশের ৯ দিনের ব্যবধানে সাঁকো নির্মান করে পরিষদের পক্ষ থেকে।

পাঠকের মতামত: