ঢাকা,বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাইশারীতে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে ৫ গ্রামের ৩ শতাধিক বসতবাড়ি পানির নিচে

এম হাবিবুর রহমান রনি, নাইক্ষ্যংছড়ি ::  বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে ৫ গ্রামের প্রায় ৩ শতাধিক বসতবাড়ি এখন পানির নিচে তলিয়ে গেছে।
মংগল রাত থেকে বুধবার পর্যন্ত প্রবল বর্ষনের ফলে ইউনিয়নের দক্ষিণ বাইশারী, দক্ষিণ নারিচ বুনিয়া, পশ্চিম বাইশারী, গুদাম পাড়া, মধ্যম বাইশারী,করলিয়ামুরা, উত্তর বাইশারীর অধিকাংশ বাড়ীঘরে পানি উঠেছে।
সরজমিনে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বসতবাড়ীতে পানি উঠার ফলে মুরগী, গরু ছাগল, আসবাব পত্র, ছোট্ট ছেলে মেয়েদের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।
অপর দিকে জানমালের নিরাপত্তার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি ৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয়ন কেন্দ্র খোলা হয়েছে। তাদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম জানান ৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ শতাধিক মানুষের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া উক্ত বিদ্যালয় গুলুতে থাকার ও ব্যবস্থা করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান আল্লাহ র রহমতে এ পর্যন্ত কোন বড় ধরনের ঘটনা ঘটেনি। আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে বিস্তারিত ঘটনা টাইমটু টাইম জানিয়ে রাখছি।
সরজমিনে আরো দেখা যায় টানা বর্ষনে বাইশারী –ঈদগাও সড়ক, বাইশারী -গর্জনিয়া সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে। বাজারের রাস্তাঘাট, দোকানপাট, বাইশারী ইসলামি আদর্শ বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, নারিচবুনিয়া দাখিল মাদ্রাসা, শাহ নুরুদ্দীন দাখিল মাদ্রাসা, উন্নয়ন বোর্ডের পাড়া কেন্দ্র আংশিক পানিতে তলিয়ে গেছে।
এছাড়া টানা বর্ষনে মধ্যম বাইশারীর বাসিন্দা সাংবাদিক আবদুর রশিদের বসত বাড়ীর দেওয়াল ভেংগে গেছে এবং বিভিন্ন জায়গায় পাহাড় ধসে পড়ার সম্ভাবনা কথা অনেকে এই প্রতিনধির নিকট জানিয়েছেন।
এবিষয়ে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পরিদর্শক) লিয়াকত আলী জানান পুলিশের একটি দল বন্যাকবলিত এলাকায় রয়েছে এবং সবকিছু খবরা খবর রাখা হচ্ছে।
এই রিপোর্ট পাঠানো পর্যন্ত প্রবল বর্ষন অব্যাহত ছিল।

পাঠকের মতামত: