ঢাকা,মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

চকরিয়ার বরইতলীতে গৃহবধুকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ, স্বামী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া :: চকরিয়ায় সানজিদা বেগম (১৯) নামের এক গৃহবধূকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বামী মো. ছাদেককে আটক করেছে চকরিয়া থানা পুলিশ। গৃহবধূ সানজিদার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আজ ৪জুন/বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের দরগাহ পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। তার দেড় বছরের এক সন্তান রয়েছে। নিহত সানজিদা ওই এলাকার মৃত আবু নাহিদ বাবুলের মেয়ে।

সানজিদার বড় বোনের জামাই মো. করিম বলেন, ‘গত ৩ বছর আগে বরইতলীর দরগাহ এলাকার মো. ছাদেকের সাথে আমার শ্যালিকা সানজিদার বিয়ে হয়। এরপর তাদের সংসারে এক সন্তান জন্ম নেয়। এর মধ্যে সানজিদার স্বামী মো. ছাদেক পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। এরপর থেকে শুরু হয় সানজিদার ওপর নির্যাতন।’

করিম আরও বলেন, ‘শ্যালিকা সানজিদাকে নির্যাতনের খবর পেয়ে রোজার আগে তাকে বাপের বাড়িতে নিয়ে আসি। গত কয়েকদিন আগে স্থানীয় মেম্বারের অনুরোধে তাকে আবার শ্বশুরবাড়িতে পাঠাই। কিন্তু সানজিদা শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পর আবার শুরু হয় নির্যাতন। নির্যাতনের এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে সানজিদার মৃত্যু হয়। শ্বশুরবাড়ি থেকে আমাদেরকে খবর দেওয়া হয়, সানজিদা বিদ্যুতের শর্ট সার্কিটে মারা গেছে।’

নিহতের দুলাভাই করিম বলেন, ‘আমরা গিয়ে দেখতে পাই, সানজিদার নিথর দেহ মাটিতে পড়ে রয়েছে। তার গলায় কালো দাগ এবং কান দিয়ে রক্ত ঝরছে। পরে আমরা ঘটনাটি পুলিশকে জানাই। পুলিশ গিয়ে ঘাতক স্বামী ছাদেককে আটক করে।’

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান চকরিয়া নিউজকে বলেন, ‘সানজিদাকে হত্যা করা হয়েছে নাকি শর্ট সার্কিটে মৃত্যু হয়েছে, তা নিশ্চিত না। দুইপক্ষ দুই ধরনের কথা বলছে। তাই আমরা লাশ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে, হত্যা নাকি শর্ট সার্কিটে মৃত্যু। তবে সানজিদার স্বামী ছাদককে আটক করা হয়েছে ।’

পাঠকের মতামত: