ঢাকা,শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

চকরিয়ায় মহাসড়কে পুলিশের বিশেষ চৌকি স্থাপন কাচাঁমালের গাড়ি চলাচলে নতুন সময় সুচি নির্ধারণ

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :: করোনা ভাইরাসের হটস্পট পরিণত হওয়া কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার জনগনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে এবার কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন এর নির্দেশে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারাস্থ মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ স্টেশনের সামনে বিশেষ তল্লাসি চৌকি স্থাপন করেছে চকরিয়া থানা পুলিশ।

স্থাপিত ওই তল্লাসি চৌকিতে বসে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবদি থানা পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের একটি ইউনিট সবধরণের যানবাহন চলাচলে গতিবিধি লক্ষ্য করবে। সরকারি নির্দেশনা লঙ্গনে দিনে বা রাতে অন্য কোন পরিবহন চলাচল করলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেবে পুলিশ। তবে কাচাঁমালবাহি অর্থাৎ সবজিবাহি যানবাহন চলাচলে নতুন সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষথেকে। নতুন সুচি অনুযায়ী প্রতিদিন রাত ৭ টা থেকে পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত বিনা বাঁধায় ওই তল্লাসি চৌকি অতিক্রম করতে পারবে কাচাঁমাল বাহি যানবাহন সমুহ। পাশাপাশি দিবা-রাত্রি চলাচল করতে পারবে জরুরী খাদ্য পরিবহনে নিয়োজিত যানবাহন, রোগী নিয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারমুখী অ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন গাড়ি এবং জরুরী ওষুধ সরবরাহে নিয়োজিত পরিবহন ও সংবাদপত্র-সাংবাদিক পরিবহনে নিয়োজিত যানবাহন সমুহ। আর অবশিষ্ট যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

বুধবার ২০ মে দুপুরে অনুকুলস্থলে উপস্থিত থেকে স্থাপিত তল্লাসি চৌকির সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং করেছেন সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো.মতিউল ইসলাম। ওইসময় উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া থানার ওসি মো.হাবিবুর রহমান, ওসি তদন্ত একেএম শফিকুল আলম চৌধুরী, মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের ওসি মো.মোরশেদুল আলম চৌধুরী।

মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁিড়র সামনে মহাসড়কে স্থাপিত পুলিশের তল্লাসি চৌকির সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং শেষে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো.মতিউল ইসলাম বলেন, কক্সবাজারের চকরিয়া এখন করোনা আক্রান্তের হটস্পটে পরিণত হচ্ছে। উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষথেকে বারবার চেষ্ঠা থাকলেও জনগনের সদিচ্ছার কারণে লকডাউন পুরোপুরি কার্যকর না হওয়ায় আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে করোনা রোগী। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে সর্বত্রে।

তিনি বলেন, করোনার হটস্পট পরিণত হওয়া চকরিয়া উপজেলার জনগনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে এবার কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন মহোদয় নির্দেশ দিয়েছেন মহাসড়কে সবধরণের যানবাহন চলাচলে গতিবিধি লক্ষ্য রাখতে। সেইজন্য কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারাস্থ মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ স্টেশনের সামনে বিশেষ তল্লাসি চৌকি স্থাপন করা হয়েছে। স্থাপিত ওই তল্লাসি চৌকিতে বসে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবদি থানা পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের একটি ইউনিট সবধরণের যানবাহন চলাচলে গতিবিধি লক্ষ্য করবে। সরকারি নির্দেশনা লঙ্গনে দিনে বা রাতে অন্য কোন পরিবহন চলাচল করলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

এএসপি মতিউল ইসলাম আরও বলেন, তবে কাচাঁমালবাহি অর্থাৎ সবজিবাহি যানবাহন চলাচলে নতুন সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষথেকে। নতুন সুচি অনুযায়ী প্রতিদিন রাত ৭ টা থেকে পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত বিনা বাঁধায় ওই তল্লাসি চৌকি অতিক্রম করতে পারবে কাচাঁমাল বাহি যানবাহন সমুহ। পাশাপাশি দিবা-রাত্রি চলাচল করতে পারবে জরুরী খাদ্য পরিবহনে নিয়োজিত যানবাহন, রোগী নিয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজারমুখী অ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন গাড়ি এবং জরুরী ওষুধ সরবরাহে নিয়োজিত পরিবহন ও সংবাদপত্র-সাংবাদিক পরিবহনে নিয়োজিত যানবাহন সমুহ। #

পাঠকের মতামত: