ঢাকা,রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

উখিয়া ও টেকনাফের ৩২০০ পরিবারকে কোস্ট ট্রাস্টের মানবিক সহায়তা

নিজস্ব প্রতিবেদক ::  করোনা সংকট মোকাবেলায় কক্সবাজার জেলায় বিভিন্ন মানবিক সহায়তা অব্যাহত রেখেছে বেসরকারি সংস্থা কোস্ট ট্রাস্ট। বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ার পর থেকেই সংস্থাটি   সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে ৪.৫ লক্ষ লিফলেট বিতরণ করে। পাশাপাশি মায়ানমার হতে আগত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে সচেতন করতে ২.২৮ লক্ষ বার্মিজ ভাষায় অনুবাদ করা লিফলেট বিতরণ করা হয়।
২৫শে মার্চ সরকার কর্তৃক লকডাউন ঘোষনা করার পর বিশেষ করে শ্রমজীবি মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ে। তাদের জীবিকা হুমকির মুখে পড়ে,  দেখা দেয় খাদ্য সংকট এবং করোনায় নিজেদের নিরাপত্তা বিধানের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ ক্রয়ে আর্থিক অনটন।  পীড়িত মানুষের পাশে দাাঁড়াতে কোস্ট ট্রাস্ট টেকনাফ উপজেলার পৌরসভা সহ সকল ইউনিয়নের ১৬০০টি পরিবার এবং উখিয়া উপজেলার রাজাপালং, রত্নাপালং,জালিয়াপালং এবং হলদিয়া পালং ইউনিয়নে ১৬০০টি পরিবারের মধ্যে বিশুদ্ধ পানি সংরক্ষণের জন্য ঢাকনা সহ কলসী, হাত ধোয়ার জন্য তিনটি করে সাবান এবং কাপড় কাঁচার তিনটি করে  লন্ড্রি সাবান বিতরণ করে।  পাশাপাশি উখিয়া উপজেলার ১৬০০টি পরিবারের মাঝে ৫ কেজি করে চাল বিতরণ করে।
উল্লেখ কনরা যেতে পারে যে, স্থানীয় প্রশাসন এবং ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক সরবরাহকৃত এবং অনুমোদিত তালিকা ধরে গত ১১ মে ২০২০ তারিখ টেকনাফ পৌরসভা হতে শুরু হয়ে আজ ১৬ মে ২০২০ তারিখ উখিয়া উপজেলার হলুদিয়া পালং ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। বিশেষ এই কর্মসূচিতে সহায়তা প্রদান করেছে টিয়ারফান্ড।
উল্লেখ করা যেতে পারে যে, কোস্ট নিজস্ব তহবিল থেকে তার কর্ম এলাকার জেলা এবং উপজেলা সমূহের করোনা তহবিলে নগদ ১৬ লাখ  টাকা অনুদান প্রদান করেছে। স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বিভিন্ন হাসপাতাল এবং সমাজ কমিটিকে পিপিই এবং জীবানু মুক্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ প্রদান করেছে।

পাঠকের মতামত: