Home » কক্সবাজার » চকরিয়া ও রামুতে এবং১০০ শয্যার পৃথক ইউনিট প্রস্তুত রাখা হচ্ছে করোনা মোকাবেলায়, রোগীর তথ্য জানাতে-০১৭২৪৪৪৫১৯২

চকরিয়া ও রামুতে এবং১০০ শয্যার পৃথক ইউনিট প্রস্তুত রাখা হচ্ছে করোনা মোকাবেলায়, রোগীর তথ্য জানাতে-০১৭২৪৪৪৫১৯২

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সারাদেশের ন্যায় করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কক্সবাজারের রামুতে ৫০ শয্যা এবং চকরিয়াতে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ইউনিট বা পৃথক সেবা কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এতে জেলার সকল স্থানীয় নাগরিক এবং রোহিঙ্গাদের মধ্যে যে কেউ করোনা আক্রান্ত হলে সাথে সাথে তাকে এই বিশেষ সেবা কেন্দ্রে এনে চিকিৎসা দেওয়া হবে। যেহেতু এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশে শুধু মাত্র ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগি সনাক্ত করা হয়েছে। তাও সবাই বিদেশ ফেরত, তাই যারা বিদেশ থেকে এসেছে তাদেরকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে। একই সাথে জেলা সদর হাসপাতাল সহ সব উপজেলা হাসপাতালে একটি বিশেষ ইউনিট থাকবে সেখানে শুধু মাত্র করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগিকে সেবা দেওয়া হবে। এর বাইরে যদি প্রয়োজন হয় তাহলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা-চট্টগ্রামেও নেওয়া হবে। তাই আংতিক না হয়ে ধৈর্য্য ধরে এই বিপদকালীন মুহুর্ত কাটিয়ে উঠার জন্য সবাইকে এক সাথে কাজ করতে হবে। ৯ মার্চ বিকালে কক্সবাজার স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে ইপিআই সেন্টারে এক বিশেষ সভায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (পরিকল্পনা ও গবেষনা) ডাঃ ইকবাল কবীর এ সব কথা বলেন।

কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মাহাবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক আরো বলেন, কক্সবাজারে যেহেতু রোহিঙ্গাদের কারণে অনেক বিদেশী অবস্থান করছে এবং আসা যাওয়ার মধ্যে থাকে তাই এই জেলাকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ। যারা চীন, ইতালি, হংকং, ইরান থেকে আবসে তাদের অবশ্যই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য আমাদের আইসোলেশন ইউনিটে রাখা হবে।

এছাড়া যারা বিদেশ থেকে এসে পরিবারের সাথে থাকবে তাদের ব্যাপারেও আমরা খোঁজ খবর রাখবো যাতে করোনা ছড়াতে না পারে। এ সময় তিনি বলেন, বর্তমান সরকারে করোনা ভাইরাসের চেয়ে বড় বড় মহামারী মোকাবেলা করেছে তাই আল্লাহর রহমতে এই করোনা ভাইরাস মোবাবেলায় আমরা সার্বিক প্রস্তত আছি। আর মুখে মাক্স ব্যবহার করার চেয়ে নিয়মিত ব্যাক্তিগত পরিচর্যা এবং হাতমুখ ধুয়ে পরিস্কার রাখার জন্য আহবান জানান তিনি। এছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প সহ সর্বস্ত্র করোনা ভাইরাস ঠেকাতে আর্ন্তজাতিক দাতা সংস্থা, এনজিও, আইএনজিও সহ সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান।

এতে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্ডিনেশন সেলের প্রধান ব্রিগেডিয়ার (অব) মোহাম্মদ আলী। জেলা সদর হাসপাতালের তত্ববধায়ক ডাঃ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নোবেল কুমার বড়ুয়া, চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শাহবাজ সহ অন্যান্য সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সহ বিশ^ সংস্থার কর্মকর্তা সহ সকল এনজিওর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১০ টায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত জেলা কমিটির সচেতনা মূলক সভা অনুষ্টিত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। এতে শীর্ষ স্থানীয় রাজনৈতিক নেত্রীবৃন্ধ সরকারি কর্মকর্তা সহ বিভিন্ন মহলের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন এ সময় জেলা প্রশাসক করোনা ভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনা বৃদ্ধি সহ কোন প্রকার আতংক না ছড়ানোর জন্য অনুরোধ করেন এবং জেলা প্রশাসন থেকে এ বিষয়ে কন্ট্রোল রুম খোলা হয় যার নাম্বার ০১৭২৪৪৪৫১৯২। যেখানে ফোন করলে ডাক্তার নিজে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আইজিপি হচ্ছেন বেনজীর আহমেদ

It's only fair to share...000নিজস্ব প্রতিবেদক :: মহাপুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) হচ্ছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাবের) ...

error: Content is protected !!