Home » কক্সবাজার » পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের অসাম্প্রদায়িক চেতনার সার্বজনীন ব্যক্তিত্ব ছিলেন রামুতে বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদে এমপি কমল

পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের অসাম্প্রদায়িক চেতনার সার্বজনীন ব্যক্তিত্ব ছিলেন রামুতে বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদে এমপি কমল

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

নীতিশ বড়ুয়া, রামু ::  কক্সবাজার-৩(সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, একুশে পদক প্রাপ্ত পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের শুধু একজন বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু ছিলেননা, সকল সম্প্রদায়ের মানুষের কাছে তার জনপ্রিয়তা ছিল ঈর্ষনীয়। তাঁর কর্ম দিয়ে আজীবন তিনি মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। সংসদ সদস্য সাইমুম সরওযঅর কমল আরও বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে জাতি, ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে বিপদাপন্ন মানুষকে তাঁর বিহারে আশ্রয় দিয়ে যে দৃষ্টান্ত তিনি স্থাপন করেছেন তা আজীবন রামুর মানুষ স্মরণ করবেন। তাঁর স্মৃতি ধরে রাখতে বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদ ‘পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের শিক্ষাবৃত্তি’ নামে যে বৃত্তি প্রবর্তন করেছে এটি একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এ উদ্যেগের জন্য আমি বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদ এবং এ বৃত্তির প্রধান পৃষ্ঠপোষক সাজু বড়ুয়াকে ধন্যবাদ জানাই। এ সময় তিনি সমাজ, দেশ এবং জাতিকে এগিয়ে নিতে, সাজু বড়ুয়ার মতো সবাইতে এগিয়ে আসার আহবান জানান এবং আগামী ২২–২৯ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান সফল ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সবার প্রতি অনুরোধ জানান।

রোববার (২৬ জানুয়ারী) রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারে কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদ আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থী সন্মাননা ও ‘পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের শিক্ষাবৃত্তি’ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল আরো বলেন, যারা উদার হস্তে দান করেন তারা পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানুষ। তারা সর্বত্র সম্মানিত হয়ে থাকেন। ধর্মের বাণীতে তাই বলা হয়েছে। পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের কেবল বৌদ্ধদের ধর্মীয় গুরু ছিলেন না, তিনি অসাম্প্রদায়িক চেতনার একজন বড় মনের সার্বজনীন ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তাঁর স্মরণে শিক্ষাবৃত্তি প্রবর্তন নিঃসন্দেহে একটি ভাল উদ্যোগ। আমি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

অনুষ্ঠানে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ৪৫ জন গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা বৃত্তি ও ক্রেস্ট এবং ২০১৯ সালে জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়া ১৫ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সন্মাননা এবং প্রাথমিক পর্যায়ের ৯জন শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রকাশিত স্মারক গ্রন্থ ‘সত্যপ্রিয়’-এর আনুষ্ঠানিক ভাবে মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের মুখ্য আলোচক ডাঃ উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, ভারতবর্ষে বৌদ্ধদের পতনের ইতিহাস পর্যালোচনায় দেখা যায় যুগে যুগে বহু বৌদ্ধ বিহার বিভিন্ন শাসকদের আক্রমণের শিকার হয়েছে, বৌদ্ধ ভিক্ষুদের হত্যা করা হয়েছে, ত্রিপিটক লাইব্রেরী ধ্বংস করা হয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মাটি কুড়লেই এখনো বৌদ্ধ নিদর্শন পাওয়া যায়। এদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে বৌদ্ধদের অবদান আছে, বৌদ্ধ ভিক্ষুদের অবদান আছে। ‘সংখ্যাগুরু এবং সংখ্যালঘু আমাদের মূল পরিচয় নয়। এটা ভোটের ক্ষেত্রে সংখ্যার একটি সমীকরণ মাত্র। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সংখ্যা গরিষ্টতার প্রয়োজন হয়। ডাঃ উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, শেখ হাসিনা সরকার আছে বলেই আমরা ভাল আছি। শেখ হাসিনা আজীবন থাকবেননা। নিজেদেরকে নিজেদের পরিচয় তৈরি করে নিতে হবে। শিক্ষা-দীক্ষায় উন্নত হয়ে জীবনে সুপ্রতিষ্ঠিত হতে হবে। মহামতি বুদ্ধের শিক্ষা গ্রহণ করলেই সমাজে ঐক্য এবং সংহতি আসবে। শান্তি এবং সমৃদ্ধি আসবে।

রামু উত্তর মিঠাছড়ি বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্রের পরিচালক করুনাশ্রী মহাথের’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন পটিয়া কেন্দ্রীয় বিহার ও কল্যাণ প্রকল্পের পরিচালক ড. সংঘপ্রিয় মহাথের। মূখ্য আলোচক ছিলেন, ঢাকা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মায়েঁনু, কক্সবাজার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ঋত্তিক চৌধুরী, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল খায়ের, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া, রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাজু বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন, পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের শিক্ষাবৃত্তি অনুষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সাজু বড়ুয়া।

শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য দেন কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের সভাপতি প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন, জেলা যুবলীগ নেতা পলক বড়ুয়া আপ্পু ও রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়ুয়া। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের শিক্ষাবৃত্তি পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া। উল্লেখ্য, বৃত্তির ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য প্রধান পৃষ্ঠপোষক সাজু বড়ুয়া দশলাখ টাকা অনুদানের প্রতিশ্রুতি দেন। ### ###

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

৫-৯ এপ্রিল খোলা থাকবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্যাশকাউন্টার-ভল্ট

It's only fair to share...000বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম ::  তফসিলি ব্যাংকগুলোর সীমিত আকারে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার সুবিধার্থে বাংলাদেশ ...

error: Content is protected !!