ঢাকা,শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

রামুর দারিয়ারদিঘীতে যৌথ অভিযানে সেই অবৈধ স’মিল উচ্ছেদ

সোয়েব সাঈদ, রামু :  রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের পূর্ব দারিয়ারদীঘি গ্রামে জামে মসজিদ, কবরস্থান, মাদ্রাসা ও জনবসতিপূর্ণ স্থানে জনমত উপেক্ষা করে নির্মিত প্রভাবশালী ব্যক্তির আলোচিত স’মিল (করাতকল) গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। শনিবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা ও রাজারকুল রেঞ্জ কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান টগরের নেতৃত্বে যৌথ অভিযান চালিয়ে এটি উচ্ছেদ করা হয়।

রাজারকুল রেঞ্জ কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান টগর জানিয়েছেন, পূর্ব ধেছুয়াপালং গ্রামের মৃত হাজী জাফর আলমের ছেলে মোহাম্মদ হোছন অবৈধ করাতকলটি স্থাপন করেন। এনিয়ে স্থানীয়রা বন বিভাগ এবং প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দেয়। এরই প্রেক্ষিতে এ অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে স্থাপনাটি গুড়িয়ে দেয়া হয় এবং করাত কলের সকল সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযানে রামু উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, বন বিভাগের আপাররেজু বিট কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আবদুর রহিম জানিয়েছেন, পরিবেশ ধ্বসংকারী অবৈধ এ স’মিল (করাতকল) স্থাপন না করার দাবীতে আগেরদিন (শুক্রবার) এলাকাবাসী মানববন্ধনও প্রতিবাদ সমাবেশ করে। এখন করাত কলটি উচ্ছেদ করায় জনমনে স্বস্থি ফিরে এসেছে। উল্লসিত জনতা এ ধরনের তড়িৎ প্রদক্ষেপ নেয়ায় সংসদ সদস্য আলহাজ¦ সাইমুম সরওয়ার কমল, জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা, রাজারকুল রেঞ্জ কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান টগর সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

পাঠকের মতামত: