ঢাকা,শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে মাতামুহুরীসহ নির্মিত হচ্ছে ৬ লেনের নতুন ৪টি  সেতু

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া :: চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীর উপর নির্মিত হচ্ছে ৬ লেনের নতুন সেতু। ৬০ বছর আগে নির্মিত পুরানো সেতুটি যানবাহন চলাচলে মারাত্বক ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আওতাধীন বাংলাদেশ সেতু কতৃপক্ষ নতুন এ সেতু নির্মানের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। জাইকা ও বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুটি। সেতুটির পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্তে নির্মিত হবে ৬ লেনের এক কিলোমিটার এপ্রোচ রোড। এতে সেতুতে যানজট আর থাকবেনা।

সেতুর তদারকির দায়িত্বে নিয়োজিত প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন চকরিয়া নিউজকে জানান, ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রেুাভমেন্ট প্রজেক্টের অধীনে ৭৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়ার ইন্দ্রাপুল, দোহাজারীর শংখ নদীর উপর শংখ সেতু ও বরুমতি খাল ও কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীর উপর স্বাধীনতার ৪৯ বছর পর এ প্রথম নির্মিত হচ্ছে নির্মিত হচ্ছে ৬ লেনের ৪টি নতুন সেতু।

দক্ষিণ চট্রগ্রাম, বান্দরবান ও কক্সবাজার জেলার অর্ধকোটি মানুষের পাশাপাশি প্রতিবছর দেশ-বিদেশ থেকে বাংলাদেশের পর্যটন রাজধাণী-বিশ্বের দীর্ঘতম বেলা ভুমি কক্সবাজারে ভ্রমনে আসা কোটি কোটি মানুষের মাঝে মাতামুহুরী নদীসহ অন্য ৩ স্থানে নতুন সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ায় স্বস্তিÍ ফিরে এসেছে।

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীতে ১৯৬০ সালে নির্মিত পুরানো সেতুটির রেলিং ভেঙ্গে অহরহ দূর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। বেশ ক’বছর আগে পর্যটকবাহী একটি বাস সেতুর নীচে পড়ে গিয়ে ২০পর্যটক নিহত হয় ও আহত হয় অনেক। এখনো প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। এ ছাড়া সেতুর মাঝখানে ছাদের বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহন চলাচল রীতিমত মারাত্বক ঝুঁকিপূর্ন হয়ে উঠেছে। এ অবস্থায় এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের ২২ নভেম্বর মাতামুহুরী নদীর উপর ৬ লেনের নতুন সেতু নির্মানের কাজ শুরু হয়েছে।

মাতামুহুরী নদীর উপর সেতুসহ অপর ৩টি সেতুর নির্মানের দায়িত্ব পান স্পেকট্রা-সি আর ২৪ বি জয়েন্টভেঞ্চার লিমিটেড, ওই প্রতিষ্টানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মাতামুহুরী নদীর উপর ৬ লেনের নির্মিত সেতুটির দৈর্ঘ হবে ৩২১.৪৫মিটার, প্রস্ত ৩০.৪৫০ মিটার, সেতুতে স্পেন বসবে ৮টি ও পিলারের সংখ্যা হচ্ছে ৯টি। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জানা গেছে, বর্তমানে রাত-দিন বিরামহীনভাবে নির্মাণ শ্রমিকরা সেতু নির্মাণের কাজ দ্রুত চালিয়ে যাচ্ছে। সেতুটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা ২০২১ সালের ২১ নভেম্বর, তারা নির্দিষ্ট সময়ের আগেই সেতু নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার আশাবাদী।

পাঠকের মতামত: