Home » কক্সবাজার » ঈদগাঁওর প্রধান সড়কটি মৌসুমী ব্যবসায়ীদের দখলে!

ঈদগাঁওর প্রধান সড়কটি মৌসুমী ব্যবসায়ীদের দখলে!

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

এম আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও ::  ঈদগাঁও বাজারের প্রধান চলাচল সড়কের যত্রতত্র স্থান ফুটপাত দখলমুক্ত হচ্ছেনা। প্রতিশ্রুতি থাকলে নেই কোন অগ্রগতি। বর্তমানে যাতায়াত সড়ক যেন কাঁচা তরকারী বাজারে পরিনত হয়ে পড়েছে। প্রশাসনিক তদারকির অভাবে দীর্ঘকাল ধরে ফুটপাত দখলও গাড়ি পার্কিংয়ে দূর্বিসহ হয়ে পড়ে স্বাভাবিক জনজীবন। বাজারের পরিধি বাড়ছে,পণ্য পরিবহন,ব্যবসায়ী কার্যক্রম,ক্রেতা-বিক্রেতা এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

দেখা যায়,জনদূর্ভোগে নাকাল সাধারণ ভোক্তা,ক্রেতা-বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীসহ হতাশ হয়ে পড়া ঈদগাঁও বাজার নির্ভর পরিবারসমূহের কর্তাব্যক্তিরা। বৃহৎ এলাকা জুড়ে বিস্তৃত বাজারের প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে উপসড়কের অলিগলি সবখানেই ফুটপাত দখল করে দোকানের সানশেড,পণ্য পসরা,ভাসমান হকার,মৌসূমী ফল বিক্রেতা,তরকারী বিক্রেতা,কবিরাজী ঔষুধ বিক্রেতাসহ নির্মাণ সামগ্রী বিক্রয় প্রতিষ্ঠান রড সিমেন্ট ও হার্ডওয়ার সামগ্রী। ডিসি সড়কটি মৌসুমী ব্যবসায়ীদের দখলে। ফলে বাজারমুখী ক্রেতা-বিক্রেতা,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যাতায়াতকারী শিক্ষার্থীসহ সাধারণ জন গণের দূর্ভোগ চরমে উঠে। সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। পথচারীরা ফুটপাতের পরিবর্তে ব্যবহার করছে গুরুত্বপূর্ণ সড়কের মধ্যভাগ। এমন চিত্র ঈদগাঁও বাজারের সবখানেই। পণ্য পরিবহন ও পণ্য খালাসের জন্য কোন সুনির্দিষ্ট নিয়ম কানুন না থাকায় পণ্যবাহী ট্রাক,কাভারভ্যান বাজারে প্রবেশ করে প্রধান সড়কের অর্ধেক অংশ দখল করে রাখে। পণ্যখালাস করে যানবাহন স্থান ত্যাগ না করা পর্যন্ত দীর্ঘক্ষন ধরে যানজট লেগেই থাকে।

১২ ডিসেম্বর বিকেলে ছাগল বাজার পয়েন্ট কজন ব্যাক্তি জানান, ঈদগাঁওর প্রধান চলাচল সড়ক যেন ভাসমান ব্যবসায়ীদের দখলে বললেই চলে। এসব দেখার কি কেউ নেই। আছে শুধুই প্রতিশ্রুতি নেই কোনই অগ্রগতি।

গ্রামাঞ্চল থেকে বাজারে আসা পথচারীরা যাতায়াত করতে হিমশিম খাচ্ছে। ছোট ছোট যানবাহন চলাচলে বিপাকে পড়ছে। বাজারে নিদিষ্ট তরকারী বাজার থাকার পরেও ব্যস্ততম সড়কে ফের তরকারী ব্যবসা আসলে দু:খজনক। সড়কে দুটি যানবাহন ক্রসিং হওয়ার মত পর্যাপ্ত জায়গাও থাকেনা।

শামসু, আজিম,আলমসহ পথচারীর মতে,ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটি নীরব দর্শকের ভুমিকা পালন করায় এহেন অবস্থার সৃষ্টি। একটু উদ্যোমী হলে ঐতিহ্যবাহী বাজারটি প্রতিমুহুর্তে আলোয় আলোতে ফিরে আসত।

বাজার পরিচালনা পরিষদ দপ্তর সম্পাদক ছৈয়দ করিম প্রতিবেদক কে জানান,বহুবার এসব ভাসমান ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে যে, বাজারে নিদিষ্ট তরকারী শেড়ে ব্যবসা করার জন্য। কিন্তু এসব কথা কে কর্ণপাত না করে পূূর্বের ন্যায় বাজারের প্রধান চলাচল সড়কের দুপাশে বসে ঝানজট সৃষ্টি করে।

সচেতন মহলের মতে, গুরুত্ববহ ঈদগাঁও বাজারে যত্রতত্র স্থানে বসা ভাসমান মৌসুমী ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ব চরমে উঠেছে। এসব বিষয়ে দেখার যেন কেউ নেই। হতাশ বাজারে আগত লোকজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চীনে আটকা পড়েছে ৫০০ বাংলাদেশি

It's only fair to share...000১২ দেশে করোনা ভাইরাসের বিস্তৃতি, ১৪ শহর তালাবদ্ধ, বন্ধ বাস ট্রেন ...

error: Content is protected !!