ঢাকা,রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফুলছড়িতে চিংড়ি ঘেরে ভাংচুর ও লুটপাট, আহত-৪

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁহ :: চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নে ফুলছড়ি চিংড়ি ঘেরে গভীর রাতে শসস্ত্র অস্ত্রধারীরা ভাংচুর চালিয়ে জাল-মাছ, মোবাইল ও নগদ টাকাসহ প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মারামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এসময় অস্ত্রধারীরা ঘের কর্মচারীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ব্যাপক মারধর ও ভাংচুর চালিয়ে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে গেছে। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১২ টার সময় ইউনিয়নের ফুলছড়িস্থ বিএনপি নেতা এম জাফর আহমদের মালিকানাধিন চিংড়ি ঘেরে ঘটে এ লুটপাটের ঘটনা। এতে ৪ ঘের শ্রমিককে মারধর করে গুরুত্বর আহত করা হয়েছে। আহতরা হলেন নতুন অফিস মাদরাসা পাড়ার জাবের আহমদের পুত্র মনছুর আলম(৪০), মৃত আমির হোসেনের পুত্র আলম(৩৯), খুটাখালী কালাপাড়ার মৃত কবির আহমদের পুত্র রুহুল আমিন(২০) ও একই ইউনিয়নের গর্জনতলীর জহিরের পুত্র আলতাফ (৪২)। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

গুরুত্বর আহত মনছুর জানায়, এদিন রাতে তারা চিংড়ি ঘেরের বাসায় অবস্থান করছিল। রাত সাড়ে ১২ টার সময় ১০/১২ জনের শসস্ত্র অস্ত্রধারীরা তাদের বাসায় প্রবেশ করে সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে ফেলে। একপর্যায়ে অস্ত্রধারীরা নানা হুমকি ধমকি দিয়ে ঘেরের জাল- মাছ, সৌর প্যানেল, মোবাইল সেট, নগদ টাকা ও পালিত মুরগী লুট করে নিয়ে যায়।

এসময় তাদের বাঁধা দিতে গেলে ব্যাপক মারধর করে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। তারা চলে যাওয়ার পর পার্শবর্তী লোকজন আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘের মালিক খুটাখালী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা বিএনপি নেতা এম জাফর আহমদ জানায়, গোল্ডেন ফার্ম প্রাঃ লিঃ চিংড়ি ঘেরের বিরোধকে পুঁজি করে সংঘবদ্ধ চিহ্নিত ডাকতারা আমার মালিকানাধিন চিংড়ি ঘেরে লুটপাট চালিয়েছে।

অস্ত্রধারীরা আমার ৪ ঘের কর্মচারীকে মারধর করে গুরুত্বর আহত করা হয়েছে। লুট করে নিয়ে গেছে ঘেরের মাছ, জাল, সৌর বিদ্যুৎ প্যানেল, মোবাইল সেট, নগদ টাকাসহ প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল। চিহ্নিত দুর্বত্তদের হুমকিতে বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্তাহীন ভুগছি। ঘটনাটি সঠিক তদন্ত পুর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তিনি পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

পাঠকের মতামত: