Home » কক্সবাজার » চকরিয়ায় ফুটবল মাঠ জবর দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন

চকরিয়ায় ফুটবল মাঠ জবর দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

মনির আহমদ, কক্সবাজার ::   চকরিয়া উপজেলার ফাসিয়াখালী ছড়ারকুলের উম্মুক্ত ফুটবল মাঠ জবর দখলের অভিযোগে মানববন্ধন করেছে একদল খেলোয়াড়। জমিনের কথিত মালিক দাবীদারের সশস্ত্র হামলার মুখে স্থানীয় ফুটবল খেলোয়াড় সমিতি তাৎক্ষনিক মহাসড়কে

এ মানব বন্ধন করে। ১৭ আগষ্ট শনিবার সকাল ৮টা থেকে ১০টায় এ ঘটনা ঘটেছে।

সরেজমিনে চকরিয়ার ফাসিয়াখালী ছড়ারকুল এলাকায় ফুটবল মাঠে গিয়ে দেখা যায়, ৫০/৬০ জনের একদল লোক দেশীয় দা লাটি, খন্তা ও কোদাল নিয়ে খেলার মাটটি দখল করে আইল দিয়ে জমি তৈরী করছে। আরেক পার্শ্বে ৩০/৪০ জন কিশোর ও যুবকের দল ফুটবল হাতে মহাসড়কে মানব বন্ধন করছে। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতির উদ্ভব হয়।

এমন উত্তেজনাকর পরিস্থিতির খবর পেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী পরিষদের চৌকিদার পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যানের বিচারের আশ্বাসে জবরদখলকারীরা জমি থেকে উঠে আসতে বাধ্য হয়। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে ফুটবল মাঠ দখলের অভিযোগ এনে ফাসিয়াখালী ফুটবল একাদশ সমিতির পরিচয়ে শতাধিক কিশোর-যুবক চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ফাসিয়াখালী ছড়ারকুল এলাকায় মানব বন্ধন করেছে।

মানববন্ধনে নেতৃত্বদানকারী ফাসিয়াখালী ফুটবল একাদশ সমিতির নেতা আবু বক্কর, মোং শাকিল ও হাছান সহ একাধিক যুবক জানায়, চকরিয়া উপজেলার ফাসিয়াখালী ছড়ারকুল চরভরাট জমিটি সরকারের ১ নং খতিয়ানভুক্ত খাস জমি। ওই জমিকে খেলার উপযোগী মাঠ তৈরী করে দীর্ঘ দেড় যুগ ধরে ফুটবল মাঠ হিসাবে ব্যবহার করে আসছিল এলাকার ক্রীড়ামোদি যুবক-কিশোররা। এ মাঠকে ঘিরে ফাসিয়াখালীর একদল তরুন ফাসিয়াখালী ফুটবল একাদশ সমিতির ব্যনারে একটি সংঘটন তৈরী করে মাঠটির দখভাল ও করে আসছিল তারা। কিন্তু গত ২ বছর ধরে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী জমিটি জবর দখল করার চেষ্টা করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজও মাঠটি জবরদখলের জন্য দা, লাটি, কিরিচ, ও কোদাল নিয়ে জমিতে আইল তৈরী করেছে। এর প্রতিবাদে স্থানীয় কিশোর ও যুবকরা মানব বন্ধন করেছে।

এদিকে জবর দখলকারী পক্ষ ফাসিয়াখালী মাদ্রাসা পাড়ার মৃত অলি মিয়ার পুত্র ছৈয়দ আহমদ (৬৫) ও তার চাচাত ভাই মৌলভী আবু ছিদ্দিক জানান, নদী সিকস্তি এ জমিটি তাঁদের পৈত্রিক খতিয়ানভুক্ত চরভরাট জমি। দীর্ঘদিন পরিত্যক্ত থাকার ফলে বেদখল হয়েছিল। তাই জমিটিকে তারা গাছ রোপন করতে চায়।

এ ব্যাপারে ফাসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ফাসিয়াখালী ৯ নং ওয়ার্ডের ছড়ারকুল খেলার মাঠ নিয়ে বিরোধের কথা আমি শুনেছি। চৌকিদার পাঠিয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করা হয়েছে।” দুই পক্ষকে ডেকে কাগজ পত্র দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।”””

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চট্টগ্রামে তিন ক্লাবে (ক্যাসিনো) অভিযান চলছে

It's only fair to share...000নিউজ ডেস্ক ::  ঢাকায় জুয়াবিরোধী অভিযানের পর এবার চট্টগ্রাম নগরীতে তিনটি ...

error: Content is protected !!