Home » কক্সবাজার » কুতুবদিয়ায় বড়ঘোপ ইউপি উপ-নির্বাচনের তিন প্রার্থীর কাছে প্রতীক বরাদ্ধ

কুতুবদিয়ায় বড়ঘোপ ইউপি উপ-নির্বাচনের তিন প্রার্থীর কাছে প্রতীক বরাদ্ধ

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

আবু আব্বাস সিদ্দিকী, কুতুবদিয়া ::  কুতুবদিয়ায় বড়ঘোপ ইউপি উপ-নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী চার প্রার্থীর মধ্যে তিন প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বুধবার (১০ জুলাই) বেলা ১১ টার দিকে কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রার্থীদের উপস্থিতিতে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

ইউনিয়নটি ঘুরে দেখা যায়, উপজেলা সদর ইউনিয়ন হওয়ায় উপ-নির্বাচন হলেও নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে মানুষের আগ্রহ দেখা যাচ্ছে বেশী। সাধারণ মানুষের মধ্যে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশী দেখা গেছে সেটি হচ্ছে ব্যক্তি ইমেজ প্রাধান্যতা।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, বড়ঘোপ ইউনিয়নের মোট ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ২৬৩ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ হজার ৯০৭ জন এবং মহিলা ভোটার ৯ হাজার ৩৫৬ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ০৯টি।

প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বড়ঘোপ ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ও প্যানেল চেয়ারম্যান আবুল কালাম নৌকা প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী  জাতীয় পার্টির কুতুবদিয়া উপজেলা সভাপতি মরহুম মাস্টার তালেব উল্লাহ সুযোগ্য সন্তান কুতুবদিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন ছোটন ঘোড়া প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী বড়ঘোপ ইউনিয়নের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম কোম্পানীর সুযোগ্য পুত্র তৌহিদুল ইসলাম (খোকন) আনারস প্রতীক পেয়েছেন।

উপ-নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা জামশেদুল ইসলাম সিকদার বলেন, নির্ধারিত দিনে তিন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এখন থেকে প্রার্থীরা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচার-প্রচারণা শুরু করতে পারবেন। এছাড়া সব প্রার্থীকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এই ইউপি উপ-নির্বাচনে  ৬জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্তু জমা দিয়েছিল ৪ জন। গত ৯ জুলাই প্রত্যাহার করেন
স্বতন্ত্র প্রার্থী যুবলীগের নেতা রুস্তম আলী। বর্তমানে এ বড়ঘোপ ইউপি উপ-নিবার্চনে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উল্লেখ্য,  ২০১৬ সালে  অনুষ্ঠিত হয়েছিল উপজেলা বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। ওই নির্বাচনে আ’লীগের সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব এড ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরে তিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের নৌকা প্রতীকে প্রার্থী হওয়ায় বড়ঘোপ ইউপি চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেন। সে কারণে বড়ঘোপ ইউপি‘র চেয়ারম্যান পদটি নির্বাচন কমিশন আবেদনের প্রেক্ষিতে শূন্য ঘোষনা করেন। ফলে, শূন্য এ আসনে আগামী ২৫ জুলাই ইউপির উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আমরা আবারও শাপলা চত্বরে যাব, হুমকি হেফাজত নেতার

It's only fair to share...000‘যদি মহানবীর সম্মান রক্ষা করতে না পারেন আপনাদের গদিতে আগুন দেয়া ...

error: Content is protected !!