Home » কক্সবাজার » লেখাপড়ার পাশাাশি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে হবে -চকরিয়া স. উচ্চ বিদ্যালয়ে ফজলুল করিম সাঈদী

লেখাপড়ার পাশাাশি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে হবে -চকরিয়া স. উচ্চ বিদ্যালয়ে ফজলুল করিম সাঈদী

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া ::

চকরিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে এবার ব্যাপক আয়োজনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়েছে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের প্রতিযোগিতা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নত শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেন পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন নামের একটি প্রতিষ্ঠান।

শনিবার সকালে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম আহমদ মো.এনামুল হকের সভাপতিত্বে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা কাইছার, চকরিয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত হোসেন, অ্যাডভোকেট মিফতাব উদ্দিন আহমদ, মো.ফয়সল চৌধুরী, সাবেক ছাত্রনেতা আশেকুর রহমান মামুন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপজেলা ও পৌরসভার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত হাজারো ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহন করেন। সঙ্গে ছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী বলেছেন, আওয়ামীলীগ একটি শিক্ষাবান্ধব সরকার। সরকার প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনা নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে দেশপ্রেমিক দক্ষ নাগরিক হিসেবে তৈরী করতে কাজ করছেন। সেইজন্য সরকারিভাবে শিক্ষাখাতের উন্নয়নে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করছেন। কারণ সরকার প্রধান শেখ হাসিনার একমাত্র লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশকে নিরক্ষতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করা। সেইলক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে বছরের প্রথমদিন শিক্ষার্থীরা নতুন পাঠ্যবই পাচ্ছে। লেখাপড়া করতে সব ধরণের উপবৃত্তি সুবিধা পাচ্ছে। মেধাবীদের সরকারি চাকুরী নিশ্চিত করা হচ্ছে। দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চালু করা হয়েছে মিড ডে মিল প্রকল্পসহ নানা ধরণের প্রনোদনা প্রকল্প। যাতে শিক্ষার্থীরা এসব সুবিধা নিয়ে সুন্দর পরিবেশে লেখাপড়া করতে পারে।

তিনি বলেন, আমি চাই আগামী দিনের দেশগড়ার কারিগর নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে সুনাগরিক হিসেবে তৈরী করতে হবে। সেইজন্য এখন থেকে চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রীড়া সাংস্কৃতিক চর্চা বাড়াতে হবে। প্রতিযোগিতায় অংশনিকে শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে হবে। নতুন প্রজন্মের জন্য শিক্ষাবান্ধব সুন্দর চকরিয়া গড়তে অভিভাবক ও শিক্ষক সমাজের কাছে সহযোগিতা চাই। আশাকরি সবাই ভালো কাজের সঙ্গে থাকবেন। #

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপির ভোট আজ : বহিরাগত ঠেকাতে বারটি তল্লাশি চৌকি

It's only fair to share...000হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, নাইক্ষ্যংছড়ি ::  বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর, সোনাইছড়ি ও ঘুমধুম ইউনিয়ন ...

error: Content is protected !!