Home » পার্বত্য জেলা » লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ির ১৫ শিক্ষকের সংযুক্তির আদেশ বাতিল

লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ির ১৫ শিক্ষকের সংযুক্তির আদেশ বাতিল

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা ::

বান্দরবানের লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৫জন সহকারী শিক্ষকের সংযুক্তি আদেশ বাতিল করে গ্রামের মূল বিদ্যালয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের দেয়া আদেশে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম এই আদেশ প্রদান করেন। এর মধ্যে দুই উপজেলার ১২টি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রয়েছেন। তারা দীর্ঘদিন থেকে সংযুক্তি আদেশে দুর্গম এলাকার স্কুল ছেড়ে সুবিধাজনক স্থানে স্কুলে শিক্ষকতা করছিলেন।

জানা যায়, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলীর নীতিমালা না মেনে দীর্ঘদিন ধরে লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার অন্তত ২০-২২ জন শিক্ষক বিভিন্ন স্কুলে সংযুক্তিতে রয়েছেন। এতে করে তাদের নিজ কর্মস্থল স্কুল গুলোর শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। সংযুক্তি থাকা বাকি ৬-৭ জন শিক্ষককেও নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরত পাঠানোর দাবী জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

সংযুক্তিতে থাকা নাইক্ষ্যংছড়ি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাইচিং চাক দোছড়ি ইউনিয়নের লেমুছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফেরত গেছেন। একই স্কুলের আশেয়া ছিদ্দিকা চাকঢালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, জেসমিন আক্তার ও আফিফা আক্তার ভাল্লুকখাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, নূর মোহাম্মদ শফিকুর রহমান দক্ষিণ চাকঢালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, রিক্তা আরা বেগমকে লামা পৌরসভার এলাকার চেয়ারম্যানপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, বর্ডার গার্ড সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে থেকে শামসুন নাহারকে চাক হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। মোহাম্মদ ইয়াছিন আরাফাতকে মারোগ্যপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, তাংরা বিছামারায় কর্মরত সুখী মার্মাকে রেজু বৈদ্যছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, উত্তর চাকঢালায় কর্মরত উম্মে সালমাকে লেমুছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, দিলরুবা সোলতানাকে গয়ালমারা চাকঢালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, আদর্শগ্রামে কর্মরত ফাতেমা বেগমকে পশ্চিম ছাগলখাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, তাংরা বিছামারা থেকে মো. শাহ নেওয়াজকে ফুলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, আদর্শগ্রাম থেকে রেহেনা আক্তার রিনাকে বাহিরমাঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং চাক হেডম্যানপাড়া থেকে মো. জয়নাল আবেদীনকে গয়ালমারা চাকঢালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

বান্দরবান জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পাঠানো পত্র মতে নাইক্ষ্যংছড়ি ও লামা উপজেলার ১৫ জন সহকারী শিক্ষকের সংযুক্তি আদেশ বাতিল করে নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরত পাঠানো হয়। আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে শিক্ষকরা নিজ কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার কথা। অন্যথায় ১ অক্টোবর থেকে বর্তমান কর্মস্থল হতে অবমুক্ত বলে গন্য হবেন। এছাড়াও অন্যান্য শিক্ষকদের বিষয়ে তথ্য নিয়ে চেয়ারম্যানের পরামর্শক্রমে ডেপুটেশন বাতিল করা হবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দলটির নেতাকর্মীদের জেলে ভরে রাখা উচিত: জয়

It's only fair to share...32100অনলাইন ডেস্ক ::    রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপিকে সন্ত্রাসী ...