Home » কক্সবাজার » সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী বিনাশ করতে যুগ যুগে পৃথিবীতে আসেন ভগবান -চকরিয়ায় মঙ্গল শোভাযাত্রায় বক্তরা

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী বিনাশ করতে যুগ যুগে পৃথিবীতে আসেন ভগবান -চকরিয়ায় মঙ্গল শোভাযাত্রায় বক্তরা

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

মুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া :

সম্প্রাদায়িক বিষ বাষ্প যাতে ছড়াতে না পারে সেজন্য আমাদের সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। যারা ধর্মকে পুজি করে সমাজে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করছে তাদের বিনাশের জন্য ভগবান যুগে যুগে পৃথিবীতে আর্বিভুত হন। সামনে জাতীয় নির্বাচন। এ নির্বাচনে যাতে সংখ্যালগুরা নির্ভয়ে থাকে সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। এদেশে সব ধরনের অনুষ্টান আয়োজনে হিন্দু-মুসলমান-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সমান অধিকার রয়েছে।

গতকাল রবিবার বেলা ১২টায় চকরিয়া সার্বজনীন কেন্দ্রীয় হরি মন্দির প্রাঙ্গনে চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ ও নিত্যানন্দ গীতা সংঘের যৌথ উদ্যোগে ভগবান শ্রী কৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে তিনদিন ব্যপাী অনুষ্টান মালাম প্রথমদিন আয়োজিত বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রার আলোচনাসভায় বক্তরা এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ শ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ চকরিয়া উপজেলা ও নিত্যানন্দ গীতা সংঘের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা পূর্ববর্তী আলোচনা সভার সভাপত্বিত করেন ঋষি অদ্বৈতানন্দ পরিষদ চকরিয়া ও চিরিংগা ক্ষেত্রপাল মন্দির উন্নয়ন কমিটির সভাপতি ডাক্তার তেজেন্দ্র লাল দে’। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।

মঙ্গল শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ও বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপত প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন।

চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নারায়ন কান্তি দাশের সঞ্চালনায় ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক মুকুল কান্তি দাশের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া শোভাযাত্রা পূর্ববর্তী আলোচনায় সভায় সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো.আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, চকরিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি রতন বরণ দাশ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চকরিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি তপন কান্তি দাশ, সাধারণ সম্পাদক বাবলা দেবনাথ, চকরিয়া কেন্দ্রীয় হরি মন্দির উন্নয়ন কমিটির সভাপতি প্রদীপ কান্তি দাশ, বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট চকরিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি এস.কে আচার্য্য, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চকরিয়া পৌরসভা শাখার সভাপতি টিটু বসাক।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াসির আরাফাত, চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্রীদুল দাশ, চকরিয়া প্রেসক্লাবের কার্যকরী সভাপতি ছোটন কান্তি নাথ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, কক্সবাজার জেলার অর্থ সম্পাদক স্বপন গুহ, চকরিয়া উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক দীলিপ সুশীল, যুগ্ন সম্পাদক লিটন কান্তি দাশ,চকরিয়া জুয়েলারী সমিতির সভাপতি সমীরণ ধর চান্দু মহাজন, চকরিয়া কেন্দ্রীয় হরি মন্দির উন্নয়ন কমিটির অর্থ সম্পাদক সুজিত দাশ, চিরিংগা নাথপাড়া বৃটিশ-বৃদ্ধা কালী বাড়ি মন্দির উন্নয়ন কমিটির সভাপতি সুনিল বিহারী নাথ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চকরিয়া শাখার প্রচার সম্পাদক সুমন কান্তি দাশ, চকরিয়া নিত্যানন্দ গীতা সংঘের সাধারণ সম্পাদক নন্দরাম দাশ, চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি তালপ্রিয় বলরাম দাস টিটু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া পৌরসভা শাখার সাধারণ সম্পাদক সুনিপ দাশ সৌরভ, মহিলা নেত্রী আনারকলি জলদাস, চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের অর্থ সম্পাদক রিপন বসাক, সদস্য বিধান ধর, নেপাল দাশ, মাষ্টার সন্তোষ দাশ, অধ্যাপক রুপম ধর, বিকাশ দাশ, ধীমান বণিক প্রমুখ।

এর আগে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এবং বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে এবং নানা চিত্রকর্মের মাধ্যমে মঙ্গল শোভাযাত্রা চকরিয়া সার্বজনীন কেন্দ্রীয় হরি মন্দির থেকে শুরু হয়ে চকরিয়া পৌরশহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় সনাতন ধর্মীয় নারী-পুরুষ নেচে-গেয়ে শোভাযাত্রাটি মাতিয়ে রাখে।

এদিকে, ভগবান শ্রী কৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে চকরিয়া জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ ও নিত্যানন্দ গীতা সংঘ তিনদিন ব্যাপাী অনুষ্টানমালার আয়োজন করেছে। গতকাল রবিবার প্রথমদিন সকাল ১১টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা এবং বিকাল তিনটায় সংগীত প্রতিযোগীতা অনুষ্টিত হয়।

সোমবার বিকালে সাংস্কৃতিক অনুষ্টান, সন্ধ্যায় অষ্টপ্রহর ব্যাপী রমহানামযজ্ঞের শুভ অধিবাস ও রাত ৯টায় দেশে প্রখ্যাত কীর্তনীয়া অন্যন্যা দত্তের পরিবেশনায় লীলা কীর্ত্তন এবং আগামী মঙ্গলবার ভোর থেকে অষ্টপ্রহরব্যাপী মহানামযজ্ঞ। বুধবার পূর্ণাহুতির মাধ্যমে শেষ হবে তিনদিন ব্যাপী অনুষ্টান। ###

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আ.লীগ বাদে জাতীয় ঐক্য হবে না: কাদের

It's only fair to share...000আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের  ...