Home » সারাবাংলা » বন্দুকযুদ্ধে পাঁচ মাদক বিক্রেতা নিহত

বন্দুকযুদ্ধে পাঁচ মাদক বিক্রেতা নিহত

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page
ডেস্ক রিপোর্ট ::
সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাদকবিরোধী সাঁড়াশি অভিযান চলছেই। অভিযানের অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার ভোর পর্যন্ত দেশের চার জেলায় মাদকের কারবারে জড়িত পাঁচজন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

এর মধ্যে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রাজধানীর কেরানীগঞ্জে একজন, কুষ্টিয়ায় দুইজন, নাটোর ও লক্ষ্মীপুরে একজন করে মোট পাঁচজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা সবাই মাদক চোরাকারবারে জড়িত ছিল। কারও কারও বিরুদ্ধে থানায় মাদক আইনে একাধিক মামলাও রয়েছে বলে দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

প্রতিটি বন্দুকযুদ্ধের কাহিনি একই রকম। ‘মাদকের কারবারি’কে নিয়ে অভিযানে বের হলে গুলি করে তাদের সহযোগীরা। আর গোলাগুলির এক পর্যায়ে নিহত হন সন্দেহভাজন মাদকের কারবারি। কখনও কখনও পুলিশের এক-দুই জন সদস্য আহতও হন। বিডি২৪লাইভের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ার মিরপুরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই যুবক নিহত হয়েছেন, যারা মাদক চোরাকারবারি বলে ভাষ্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। তারা হলেন ফুটু ওরফে মোন্না এবং ও রাসেল আহম্মেদ। এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র, গুলি ও মাদকদ্রব্য।

বুধবার ভোরে মিরপুর উপজেলার কূর্শা ইউনিয়নের আনান্দবাজার বালুচর সংলগ্ন জোয়াদ্দারের ইটভাটার কাছে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত ফুটু রাজারহাট মোড় এলাকার আহম্মদ আলীর ছেলে এবং রাসেল একই এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে।

র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মোহাইমিনুল জানান, মাদকদ্রব্য কেনাবেচার জন্য একদল মাদক কারবারি আনন্দবাজার বালুচর সংলগ্ন জোয়াদ্দারের ইটভাটার কাছে অবস্থান করছে এমন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের একটি দল ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। র‌্যাবকে দেখামাত্র মাদক কারবারিরা গুলি ছোঁড়ে। জবাবে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। বন্দুকযুদ্ধের এক পর্যায়ে দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্যও আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের পর ঘটনাস্থল থেকে দুটি পিস্তল, ১২ রাউন্ড গুলি এবং বিপুল ইয়াবা ও ফেন্সিডিল জব্দ করা হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. নুরা ওরফে নুরু (৪৫) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। বুধবার (১১ জুলাই) ভোরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ডায়মন্ড মেলামাইন কারখানার সামনে এ ‌‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়।

মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নাটোর

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বাহিমালী এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে একদল মাদক বিক্রেতার বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এসময় এক মাদক কারবারি নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন র‌্যাবের দুই সদস্য। মঙ্গলবার রাত ১১টা ৪০ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-৫ এর পক্ষ থেকে এখনো নিহতের নাম জানানো হয়নি। তবে আহত দু’জন র‌্যাব সদস্য হলেন এএসআই মনজুর ও কনস্টেবল এনামুল হক।

র‌্যাব জানিয়েছে, বুধবার সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযানের বিস্তারিত জানানো হবে। এ ঘটনায় বিপুল পরিমাণ মাদক, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চকরিয়ায় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় শিশু ছাত্রী নিহত

It's only fair to share...000এম.মনছুর আলম, চকরিয়া : কক্সবাজার-চট্রগ্রাম মহাসড়কে চকরিয়ায় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় সুরাইয়া আফিফা কণা (৬) নামের  এক  শিশু ছাত্রী নিহত হয়েছে।নিহত ছাত্রী উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ছিকলঘাটস্থ জহির পাড়া এলাকার মোহাম্মদ নাছিমের কন্যা ও চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের নার্সারী বিভাগের শিক্ষার্থী। ১৮ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে কক্সবাজার মহাসড়কের নলবিলা চেকপোস্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শিশু ছাত্রী নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম মোস্তফা কাইছার। সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকালে নিহত শিশু কণা স্থানীয় একটি দোকানে বাজার করতে যায়।  বাজার করে বাড়িতে ফিরে এসে জানতে পারে দোকানদার তাকে অবশিষ্ট টাকা ফেরত দেন নি।পূনরায় সে অবশিষ্ট টাকা ফেরত আনতে দোকানে যাওয়ার পথে কক্সবাজার মহাসড়কের নলবিলা  চেকপোস্ট এলাকায় আকস্মিক ভাবে বিপরীত দিক থেকে আসা মোটর সাইকেলের সাথে ধাক্কা দিলে সে রাস্তা থেকে খাদে পড়ে যায়।ওই সময় স্থানীয় ও পরিবারের সদস্যরা আহত শিশু শিক্ষার্থী কণাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে চকরিয়া জমজম হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থাঅাশঙ্কাজনক হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রেরণ করেন।প্রতিমধ্যে  হাসপাতালে নেয়ার পথে শিশু ছাত্রীর মৃত্যু হয় । লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম মোস্তফা কাইছার বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক মোটর সাইকেলটি জব্ধ করা হয়েছে।চালাক পালিয়ে যাওয়ার কারণে তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি। নিহত শিশুর লাশ আইনী প্রক্রিয়া শেষে দাফন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।