Home » জাতীয় » ‘চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে’

‘চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে’

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

নিউজ ডেস্ক ::
জনগণকে সম্পৃক্ত করে মাদকের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেছেন: দেশের যুব সমাজ ও ভবিষ্যৎ মেধাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য মাদককে দমন করতে হবে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর গুলিস্তানের জিরো পয়েন্টে ‘চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে’ শীর্ষক র‌্যাবের দেশব্যাপী সচেতনতা কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় তিনি একথা জানান।

এসময় পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী এবং র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনা অনুযায়ী এই সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানটি আমরা করতে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে পুলিশ প্রশাসন ও র‌্যাব মাদক নির্মূলে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান সব সময় চলবে, মাদককে আমরা জিরো টলারেন্স নীতিতে নিয়ে আসব।

তিনি বলেন: মাদকের ব্যবসা যারা করেন বা মাদকে যারা সহযোগিতা করেন তাদের সবার বিরুদ্ধে আমরা একসঙ্গে কাজ করব। এ যুদ্ধে সবাইকে সম্পৃক্ত করতে চাই, কারণ মাদক একটা বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে আমাদের কাছে এসেছে।

আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন: দেশের যুব সমাজ ও ভবিষৎ মেধাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য মাদককে দমন করতে হবে। এদেশের জনগণকে যেমন জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে প্রধানমন্ত্রীর ডাকে একত্র হয়েছিল, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল, আমরা মাদকের বিরুদ্ধে ঠিক সেই জায়গায় যেতে চাই।

তিনি বলেন: সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বাসা, বাড়ি, বাজারে মাদকের বিরুদ্ধে স্টিকার বিতরণ করব, এছাড়া আরও যা যা করা দরকার করব। পাশিপাশি আমাদের যে অভিযানগুলো চলছে সেগুলো চলবে।

একই অনুষ্ঠানে র‌্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেন: মাদকের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ, এজন্য সমগ্র জাতিকে এক হতে হবে, সব শ্রেণী পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

তিনি বলেন: সচেতনতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দেশব্যপী ১০ লাখ পোস্টার-লিফলেট বিতরণ করা হবে।

বেনজীর আহমেদ বলেন: মাদকের বিরুদ্ধে জাতিগত যুদ্ধ করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের পর বিভিন্ন ঐক্যবদ্ধ যুদ্ধে আমরা বিজয়ী হয়েছি। এবারও আশা করি এর একটা ভালো ফলাফল পাব, মানুষ বিজয়ী হবে।

মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অত্যন্ত স্পষ্ট উল্লেখ করে র‌্যাব ডিজি বলেন: মাদকের খুচরা বিক্রেতা থেকে শুরু করে ডিলার সে যেই হোক, তাকে এ পেশা ছাড়তে হবে।

‘‘হু এভার, হোয়াট এভার, হোয়ার এভার, কেউ আমাদের অপারেশনের বাইরে নয়। মাদকের শিকড়সহ তুলে নিয়ে আসব।’’

মাদকে রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বেনজীর আহমেদ বলেন: ওই সব হাত থেকে আইনের হাত অনেক বড়। দেশবাসী ঐক্যবদ্ধ হলে যে কোন অপশক্তি পরাজিত করার ক্ষমতা আমাদের আছে।

র‌্যাব ডিজি বলেন: ২০ বছরের সমস্যা ২০ দিনে সমাধানের প্রত্যাশা করবেন না। কোন নির্দিষ্ট গ্রুপ আমাদের টার্গেট নয়। মাদকসেবী থেকে মাদক ব্যবসায়ী, বিশেষ করে মাদক ব্যবসায়ীরাই আমাদের টার্গেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দ্বীপ রক্ষার দাবিতে সেন্টমার্টিনে মানববন্ধন

It's only fair to share...27200টেকনাফ প্রতিনিধি :: দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ রক্ষা এবং স্থানীয়দের মৌলিক ...