ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০

অমুসলিমদের জন্য খুলে দেয়া হলো ব্রিটেনের ৮০টি মসজিদের দুয়ার

1454903154নিউজ ডেস্ক ::

অমুসলিমদের  জন্য  রোববার খুলে দেয়া হয় লন্ডনের প্রায় আশিটি মসজিদ। ব্রিটেনের মুসলমানদের একটি সংস্থা মুসলিম কাউন্সিল অফ ব্রিটেন এই ‘ওপেন ডে’ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
ইসলাম সম্পর্কে মানুষের মনের ভেতরে যে নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়েছে যাতে করে ভিন্ন ধর্মের মানুষ মসজিদ পরিদর্শন করে জানতে পারেন  এখানে  কি কর্মকাণ্ড হয়। ইবাদতের বাইরেও যে মসজিদ থেকে সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় এবং ইসলামের সাথে সন্ত্রাসের কোন সম্পর্ক নেই সে সম্পর্কে অবহিত করাই ছিল মূল উদ্দেশ্য।
সংস্থাটি বলছে, ইসলামপন্থীদের হাতে বড়ো রকমের বেশ কয়েকটি হামলার পর ইসলাম ধর্মের ব্যাপারে মানুষজনের মধ্যে যে ধারণা তৈরি হয়েছে সে বিষয়ে তারা উদ্বিগ্ন।একই সাথে গত কয়েক বছরে ব্রিটেনে মুসলিমদের ওপর হামলার ঘটনা এবং ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে ভীতি বা ইসলামোফোবিয়া উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।
লন্ডনের  ইস্ট লন্ডন মসজিদ ও ইসলামিক  কালচারাল সেন্টার রিজেন্স পার্কে তাদের বৃহত মসজিদ খোলা রাখে। এখানে বিভিন্ন ধর্মের মানুষদের ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে ধারণা দেয়াসহ নামাজ প্রত্যক্ষ করার সুযোগ দেয়া হয়। আয়োজকরা বললেন, এটি সুবর্ণ সুযোগ, ইসলামের নামে যারা সন্ত্রাস করছে তাদের সাথে যে ইসলামের সম্পর্ক নেই সে সম্পর্কে অবহিত করা।
উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ব্রিটেনে ইসলাম বিরোধী অপরাধ আশংকাজনক হারে বেড়েছে। গত বছর ১৫৮ জন লন্ডন মেট্টোপলিটন পুলিশ এ বিষয়ে অভিযোগ আনেন। বলেন আগের বছরের তুলনায় ইসলাম বিরোধী অপরাধ তিনগুন বেড়েছে। ব্রিটেনে প্রায় তিন মিলিয়ন মুসলমানের বসবাস। যা মোট জনসংখ্যার ৫ শতাংশ। রবিবার অসংখ্য ভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ বিভিন্ন মসজিদ  পরিদর্শন করেন।  আয়োজোকদের প্রত্যাশা মসজিদ পরিদর্শন করে পাওয়া ধারনার মাধ্যমে প্রত্যেকে তাদের প্রতিবেশি বা পরিচিতজনদের কাছে ইসলাম সম্পর্কে সঠিক ধারণা দিতে পারবেন।
ইসলাম বিরোধী সংগঠন প্যাগিড়া গত শনিবার বার্মিংহামে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। যাতে প্রায় দুইশ কর্মী-সমর্থক জড়ো হয়। শুধু ব্রিটেন নয় পুরো ইউরোপজুড়ে এই সংগঠনের কার্যক্রম বিস্তৃত। সর্বত্র তাদের অবস্থান ইসলামের বিরুদ্ধে। এমন আয়জোন  ধর্মীয় সম্প্রতি বৃদ্ধি করবে বলেই মনে করেন সাধারণ মানুষ।

পাঠকের মতামত: