Home » চকরিয়া » চকরিয়ায় সংখ্যালঘু ও উপজাতি অধ্যুাষিত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে প্রশাসন

চকরিয়ায় সংখ্যালঘু ও উপজাতি অধ্যুাষিত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে প্রশাসন

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

aaaaaএম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া ::

চকরিয়া উপজেলার সংখ্যালঘু ও উপজাতি অধ্যুাষিত এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে প্রশাসন। ইতোমধ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব এলাকার সকল ধর্মীয় উপসনালয়, মন্দির, গীর্জা এবং জনগনের বসবাস যোগ্য এলাকায় নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক পুলিশ র্ফোস মোতায়েন করে টইল জোরদার করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব এলাকায় জনপ্রতিনিধি, মসজিদের ইমাম, মাদরাসা সুপার, মন্দিরের পুরোহিত, র্গীজার পালক এবং এলাকার সর্বস্থরের মানুষের অংশ গ্রহনে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সুরক্ষা নিশ্চিতে করণীয় নির্ধারণে মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের বৌদ্ধ পল্লী, তাদের উপসনালয়, ফাসিয়াখালী ইউনিয়নের উত্তর ঘুনিয়াস্থ বৌদ্ধ মন্দির, চকরিয়া পৌরসভার ভাঙ্গারমুখস্থ বৌদ্ধ মন্দির প্রাঙ্গনে মতবিনিময় সভা করেছেন জেলা পুলিশ প্রশাসন।

অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন সহকারি পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) বাবুল চন্দ্র বণিক, সহকারি পুলিশ সুপার (মহেশখালী সার্কেল) রতন চন্দ্র ঘোষ, চকরিয়া থানার ওসি তদন্ত মো.মিজানুর রহমান, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, চট্রগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম.হামিদ হোছাইন, স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর জিয়াবুল হক। এছাড়াও অনুষ্ঠানে এলাকার মসজিদের ইমাম, মাদরাসার সুপার, মন্দিরের পুরোহিত, র্গীজার পালকসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সকলস্থরের ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, মন্দির কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেন, চকরিয়া উপজেলার সর্বস্থরের জনসাধারণ অসম্ভব ধৈয্যশীল ও শান্ত। ইচ্ছেকৃত ভাবে জনসাধারণ কোন ধরণের ফ্যাসাদে জড়িত হয়না। এই কারনে প্রতিবারই চকরিয়া উপজেলার শান্তিপ্রিয় জনগন সম্প্রীতির সেতুবন্ধনে তাদের অবস্থান অটুট রেখেছে। তিনি বলেন, সরকার প্রধান শেখ হাসিনা বাংলাদেশে সকল ধর্মের মানুষের সবস্থান নিশ্চিতে কাজ করছে। এ কারনে দেশে প্রতিটি ধর্মের মানুষ যার যার অবস্থান থেকে সুন্দরভাবে ধর্ম পালন করে যাচ্ছে। উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, অতীতের মতো চকরিয়া উপজেলার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সেতুবন্ধন অটুট রাখতে এবং সকল ধর্মের সুরক্ষা নিশ্চিতে কাজ করছে প্রশাসন। তাই প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে হবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুল বলেন, পুলিশ প্রশাসন আপনাদের সাথে আছে। সরকারের নির্দেশে পুলিশ সকল ধর্মের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতে বদ্ধপরিকর। তাই যে কোন ধরণের প্রয়োজনে আপনারা প্রশাসনকে কাছে পাবেন। জনগনের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরী করতে আমরা সতেষ্ট আছি।

মতবিনিময় সভায় উপজেলার হারবাং, বরইতলী, সুরাজপুর-মানিকপুর ও ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে আহবায়ক করে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন গুলোতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সুরক্ষা কমিটি গঠন করা হয়। #

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কক্সবাজারে খালেদা জিয়ার ৭৪তম জন্মদিন পালিত

It's only fair to share...21400প্রেস বিজ্ঞপ্তি : সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন কারান্তরীণ দেশনেত্রী ...