Home » কক্সবাজার » মহেশখালীতে মদের কারখানা গুড়িয়ে দিল পুলিশ, বিপুল মদ ও সরঞ্জামাদি উদ্ধার, আটক ১

মহেশখালীতে মদের কারখানা গুড়িয়ে দিল পুলিশ, বিপুল মদ ও সরঞ্জামাদি উদ্ধার, আটক ১

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

Mahasমহেশখালী প্রতিনিধি :::
মহেশখালীর উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের পাহাড়ের গভীর অরণ্যে দেশীয় তৈরী ছোলাই মদ উৎপাদনের কারখানার সন্ধান পেয়েছে মহেশখালী থানার পুলিশ। ওই কারখানায় প্রায় ৩০হাজার লিটার মদ উদ্ধার ও তৎপরবর্তী স্থানীয় চেয়ারম্যান ও জনতার উপস্থিতিতেই মদ নষ্ট করে দেয় পুলিশ এবং মদ উৎপাদনের সরঞ্জামাধী থানায় নিয়ে আসা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ পিপিএম বার এর নির্দেশে পুলিশ চিরুণী অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় সঙ্গেছিলেন এস আই শাহেদুল ইসলাম,এ এস আই সালামসহ সঙ্গীয় ফোর্স।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউপির চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী এবং স্থানীয় সচেতন জনতা । স্থানীয়রা আন্তরিক হয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করেন এ অভিযানে। স্থানীয়দের সহযোগীতায় এ ছোলাইমদ উৎপাদনের কারখানাগুলো গুড়িয়ে দেওয়া হয়।
এসময় মদের কারখানা থেকে শফিউল্লাহ (৩২) নামের এক জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে ছোট মহেশখালীর উত্তরকুলস্থ কাছিম আলী কাটা এলাকার মৃত নুর আহমেদ এর ছেলে।
স্থানীয়রা জানান,ছালাই মদ উৎপাদনের কারখানাগুলি উত্তরকুল এলাকার হোছাইন আলীর ছেলে আলম এবং আলম এর ছেলে ছরওয়ার এর । এছাড়াও গুড়িয়ে দেওয়া মদের কারখানার মধ্য দক্ষিণ কুল এলাকার জাফর মেম্বার এর ছেলে মোজাম্মেল এর কারখানাও রয়েছে বলে জানান এলাকাবাসি।
এলাকাবাসির সূত্রে আরো জানা যায়, দক্ষিণ কুল এলাকার মোজাম্মেল ও আলম এবং তার ছেলে সরওয়ার এর কারসাজিতে দীর্ঘ দিন যাবৎ পাহাড়ের অরণ্যে এ কারখানা গুলোতে মদ উৎপাদন ও বিপনন করে সমগ্র মহেশখালীকে মাদকের আগ্রাসনে পরিণত করেছে।
সর্বশেষ ১২ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩ টার সময় মহেশখালী থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ (ওসি)প্রদীপ কুমার দাশ পিপিএম বার এর কারিশমায় প্রায় ৩০হাজার লিটার ছোলাইমদ উদ্ধার করা হয়,পরবর্তীতে কারখানাগুলো গুড়িয়ে দেওয়া হয়।
মহেশখালী থানার নতুন ওসি’ প্রদীপ কুমার দাশ পিপিএম বার কে মহেশখালীবাসি সাধুবাদ জানিয়েছে। ভবিষৎতে এধরণের অভিযান অব্যাহত রাখতে মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ কে সাধুবাদ এবং অভিনন্দন জানিয়েছেন ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী ও সচেতন জনতা।
এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)প্রদীপ কুমার দাশ পিপিএম বার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান- অপরাধ দমন, সন্ত্রাস নির্মূল, মাদক বিরোধী অভিযান এই গুলি’ত আমার কাজ। আমি ওসি প্রদীপ মহেশখালীর সচেতন নাগরিকদের সহযোগিতা পেলে ; আশা করি একটি আধুনিক ও সন্ত্রাস মুক্ত মহেশখালী উপহার দিতে পারব এবং সন্ধান পাওয়া ও গুড়িয়ে দেওয়া মদ উৎপাদন কারখানার মালিকদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

৫৭-র চেয়ে ৩২ বড়ই থাকল, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস

It's only fair to share...23500নিজস্ব প্রতিবেদক ::  সাংবাদিক ও মানবাধিকার সংগঠনসহ বিভিন্ন মহলের আপত্তি থাকলেও ...