Home » কক্সবাজার » টেকনাফের আনসার ক্যাম্পে লুট হওয়া ১০টি অস্ত্রসহ ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার, গ্রেফতার ৩

টেকনাফের আনসার ক্যাম্পে লুট হওয়া ১০টি অস্ত্রসহ ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার, গ্রেফতার ৩

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

ফারুক আহমদ, উখিয়া (কক্সবাজার) সংবাদদাতা॥coxs logo

কক্সবাজারের টেকনাফের নয়াপাড়া আনসার ক্যাম্পে হামলা ও আনসার কমান্ডার হত্যার পর অস্ত্র লুটের ঘটনায় অস্ত্র ও গুলিসহ তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭। গত সোমবার রাত ১০টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উখিয়া উপজেলার কুতুপালংশরণার্থী ক্যাম্প থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- খাইরুল আমিন, মাস্টার আবুল কালাম আজাদ ও হাছান, র‌্যাব দাবি করেছে, এ দুই সন্ত্রাসী টেকনাফের নয়াপাড়া আনসার ক্যাম্পে হামলার পর অস্ত্র লুটের অন্যতম হোতা।

র‌্যাব-৭ এর মিডিয়া কর্মকর্তা সিনিয়র এএসপি সোহেল জানিয়েছেন, খাইরুল আমিন ও মাস্টার আবুল কালাম নামের এ দুই সন্ত্রাসীকে একটি পিস্তল, একটি ওয়ান সুটার গান ও গুলি উখিয়ার কুতুপালং থেকে গ্রেফতার করা হয়। এরা টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আনসার ক্যাম্পে হামলা করে আনসার কমান্ডার হত্যার পর অস্ত্র লুটের অন্যতম হোতা।

এদিকে অভিযানে অংশ নিতে গতকাল মঙ্গলবার উখিয়ার সীমান্তবর্তী তুমব্রু গহিন অরন্যে চলে আসেন র‌্যাবের ডিজি বেনজির আহমদ ও আনসার বাহিনীর ডিজি মিজানুর রহমান। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক খাইরুল আমিন মাস্টার আবুল কালাম আজাদ ও হাছান কে মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু এলাকায় এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে র‌্যাব জানান, উখিয়ার কুতুপালং এলাকা থেকে সোমবার রাতে দু’টি অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ির গহীন পাহাড়ে অভিযান চালান র‌্যাব সদস্যরা। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) ভোর রাতে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় টেকনাফের আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া পাঁচটি অস্ত্রসহ মোট ১০টি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নাঈক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু এলাকার গহীন অরণ্য থেকে এসব অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

পরে ঘটনাস্থলেই প্রেস ব্রিফিং করেন র‌্যাবের ডিজি বেনজির আহমেদ ও আনসার বাহিনীর ডিজি মিজানুর রহমান। তারা বলেন, পাহাড়ি অঞ্চলের গভীর অরন্যের সম্ভাব্য দুটি পাহাড় ঘিরে রেখেছে র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা। সেখানে আরও দুদিন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

তারা আরও জানান, আনসার ক্যাম্পে হামলা ও অস্ত্র লুটের ঘটনায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ এ পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৩ মে টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার ব্যারাকে সশস্ত্র হামলা চালায় একদল অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত। এ সময় হামলাকারীদের গুলিতে নিহত হন ব্যারাকের দায়িত্বরত আনসার কমান্ডার। হামলাকারীরা লুট করে নিয়ে যায় ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৬৭০ রাউন্ড গুলি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চট্টগ্রামে ইউনিলিভারের নকল প্রসাধনীর কারখানার সন্ধান, আটক ৪

It's only fair to share...19500চট্টগ্রাম সংবাদদাতা :: নগরীর চান্দগাঁও থানার কালুরঘাটে বিশ্বখ্যাত ইউনিলিভারের নকল প্রসাধনী ...