Home » কক্সবাজার » আল মাহমুদ একজন বহুমাত্রিক শক্তিমান কবি-কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর আলোচনা সভায় বক্তারা

আল মাহমুদ একজন বহুমাত্রিক শক্তিমান কবি-কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর আলোচনা সভায় বক্তারা

It's only fair to share...Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

poet-al-mahamudবার্তা পরিবেশক :::
কবি আল মাহমুদ একজন বহুমাত্রিক শক্তিমান কবি। তিনি কবিতা, গল্প, উপন্যাস দুই হাতে লিখলেও সবকিছুকে ছাড়িয়ে তাঁর কবি খ্যাতিটি উৎরে গেছে। বিশেষ করে তাঁর সোনালী কাবিন, নোলক কবিতায় গ্রামের জীবন যেমন ফুটে উঠেছে তেমনি মায়ের প্রতি ভালাবাসা পাঠককে সহজেই কাছে টানতে পেরেছে। তাঁর বিভিন্ন কবিতা, গল্পে ও উপন্যাসে উঠে এসেছে গ্রামের লোকজ উপাদান।
একাডেমীর সভাপতি মুহম্মদ নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতে একাডেমীর নির্বাহী কমিটির অর্থ সম্পাদক কবি মোহাম্মদ আমিরুদ্দীন ‘কবি আল মাহমুদের জীবনালেক্ষ নিয়ে লিখিত মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন।
লিখিত প্রবন্ধের উপর আলোচনা করেন একাডেমীর নির্বাহী সদস্য বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ পিটিআইর প্রাক্তন সুপার রাজ বিহারী চৌধুরী, জীবন সদস্য প্রবীণ আইনজীবী শামসুল আলম কুতুবী, স্থায়ী পরিষদ সদস্য গবেষক নূরুল আজিজ চৌধুরী, কবি অধ্যাপক দিলওয়ার চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক গল্পকার সোহেল ইকবাল, কল্লোল দে চৌধুরী, মোহাম্মদ লোকমান ও আদিত্য ভট্টাচার্য দিপ্ত প্রমুখ।
poet-al-mahamud-1আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তাগণ বলেন, পঞ্চাশের দশকে আর্বিভূত কবি আল মাহমুদ আধুনিক বাংলা কবিতার অন্যতম প্রধান পুরুষ। বোদলেয়ারীয় আধুনিকতায় জারিত আমাদের প্রায় সব কবির রচনায় যখন স্বকালের বন্ধ্যাত্ব, নৈরাশ্যবাদিতা, পাশ্চাত্যের অনুকরণে মেকি নগর যন্ত্রনা এবং এক সর্বগ্রাসী বিনষ্টি ও বিমানবিকীকরণের আগ্রাসন ঘটেছিল, তখন আল মাহমুদ তাঁর প্রবেশলগ্নের দেশজতা, মানবিকতা, সাম্যবাদ ও এতে লগ্ন থাকার আকুতি দিয়েই আকৃষ্ট করেছিলেন পাঠককে।
বক্তাগণ বলেন, তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ লোক লোকান্তরের ‘অরণ্যে ক্লান্তির দিন’, ‘তিতাস’, ‘এমন তৃপ্তির’, ‘নৌকোয়’, ইত্যাদি কবিতায় গ্রামীণ ঐতিহ্যলগ্নতার যে-আভাসঝলকে উঠেছিল, তা দ্বিতীয় কাব্য গ্রন্থ ‘কালের কলস’ এবং বিশেষ করে তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘সোনালী কাবিনে’ এসে চূড়ান্ত পরিণতি লাভ করে।
আলোচনা শেষে সোহেল ইকবাল, নূরুল আলম হেলালী, কল্লোল দে চৌধুরী ও আদিত্য ভট্টাচার্য দিপ্ত কবিতা পাঠ করেন।
সভায় ব্রাহ্মবাড়িয়ার নাসিরনগরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মন্দির, বাড়িঘরে হামলা, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা জানানো হয়। একই সাথে এই ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের দ্রুত আটকের মাধ্যমে আইনের হাতে সোপর্দ করার আহবান জানানো হয়।
পরে কবি আল মাহমুদের সুস্থতা কামনা ও দেশের শান্তি কামনা করে বিশেষ মুনাজাত করা হয়। একাডেমীর নির্বাহী সদস্য নুরুল আলম হেলালী দোয়া মাহফিল ও মুনাজাত পরিচালনা করেন।
একাডেমীর পরবর্তী সাহিত্য সভা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৮ নভেম্বর ২০১৬ শুক্রবার বিকাল সাড়ে তিনটায় কক্সবাজর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সদস্য কর্তৃক পঠিত স্বরচিত কবিতার উপর আলোচনা করা হবে। তাই সম্মানিত সদস্যবৃন্ধকে স্বরচিত কবিতা নিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। এখই সাথে সাহিত্য সভায় একাডেমীর সংশ্লিষ্ট সকলসহ জেলার কবি-সাহিত্যিক, সাহিত্যামোদি, সাহিত্যানুরাগী, চিন্তাশীল গবেষক, বুদ্ধিজীবীসহ সকলকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য একাডেমীর সভাপতি মুহম্মদ নূরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক কবি রুহুল কাদের বাবুল আহবান জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বান্দরবানে ডিবি পুলিশের অভিযানে ৫২০পিচ ইয়াবা উদ্ধার

It's only fair to share...19500মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, বান্দরবান প্রতিনিধিঃ বান্দরবান শহরের বাজারে অবস্থিত পৌর শপিং ...