ঢাকা,শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

কুতুবদিয়ায় তা‌রেক হত্যার ঘটনায় ১০ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, কুতুবদিয়া :: কুতুবদিয়ায় এলপি গ্যাস ব্যবসায়ী মো. তারেক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

শুক্রবার (৭-জুন) রাতে নিহতের ভাই মোহাম্মদ জিহান বাদী হয়ে উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ফারুক আজিজ ও সাধারণ সম্পাদক শরিফ উল্লাহসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ৩-৪ জনের বিরুদ্ধে কুতুবদিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টার সময় সিএনজি চালানো শেষে ধুরুং বাজারের স্কুল মার্কেটে বড় ভাই নিহত তারেককে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার জন্য দোকানে যান মামলার বাদি জিহান। তখন মামলার ৩ নং আসামি এহছানের বাড়িতে দাওয়াত আছে বলে জিহানকে ব‌লে নিহত তারেক এবং ওই দাওয়াতে আসামি তরিক উল্লাহ, মইন্না ও শরিফসহ আরো অনেকে উপস্থিত থাকবেন বলে জানান।

পরবর্তীতে গভীর রাত পর্যন্ত তারেক বাড়িতে ফিরে না আসায় মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে মোবাইল বন্ধ পেয়ে আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজখবর নেন। পরদিন ভোরে হিরো চৌধুরীর মাধ্যমে জানতে পারে যে তারেককে মেরে মগলাল পাড়া রাস্তার পাশে ফেলে রেখেছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে পৌঁছায় জিহান ও নিহতের আত্মীয়-স্বজনরা।

এজাহার আরও বলা হয়, নিহত তারেকের শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আসামিরা দাওয়াতের কথা বলে ডেকে নিয়ে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তারেককে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় ৪ দিন পর ত‌হিদুল ইসলাম না‌মে এক আসামী আটক কর‌তে সক্ষম হয় পু‌লিশ।

কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম কবির জানান, এজাহারভুক্ত একজন আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। ওই হত্যাকাণ্ডে জড়িত অপরাপর আসামিদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার উপজেলার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের মগলাল পাড়া এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে নিহত ওই ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ব্যবসায়ী মো. তারেক দক্ষিণ ধূরুং ইউনিয়নের মুছা সিকদার পাড়ার মৃত আবু তাহেরের ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে ধুরুং বাজারে এলপি গ্যাস ব্যবসা করে আসছিল।

পাঠকের মতামত: