ঢাকা,শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

লামায় বন্য হাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু

লামা সংবাদদাতা :: বান্দরবানের লামায় বন্য হাতির আক্রমণে আকতার হোসেন (৩৮) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত আকতার হোসেন উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের কুমারী চাককাটা গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে।

সোমবার (৮ মে) দিবাগত রাত আড়াইটায় ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কুমারী চাককাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্ত্রী রোকসানা বেগম ও বড় ভাই আব্দুল করিম বলেন, গতকাল দিবাগত রাত আড়াইটায় একটি বন্যহাতির পাল এসে বাড়ির উঠানে আম গাছ থেকে আম খেতে থাকে। হাতির উপস্থিতি টের পেয়ে আকতার হোসেন হাতি তাড়াতে ঘর থেকে বের হয়। এসময় একটি বড় বন্য হাতির তাকে তাড়া করে। পরে পাশের আব্দুল সালামের বাড়ির দক্ষিণ পাশে জমিতে ফেলে ধারালো দাঁত দিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে তাকে মেরে ফেলে। ভোর সাড়ে ৫টায় স্বজন ও এলাকাবাসীরা তাকে উদ্ধার করে লামা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত কৃষক আকতার হোসেনের স্ত্রীসহ ১ মেয়ে ৩ ছেলে রয়েছে।

লামা সরকারি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত মেডিকেল অফিসার ডা. শহীদুল ইসলাম বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই লোকটির মৃত্যু হয়েছে। রক্তাক্ত লাশের পিঠে ও গলায় বড় ধরনের ক্ষত চিহ্ন রয়েছে এবং সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

লামা বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা আতিকুর ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির পরিবারকে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বন বিভাগের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হবে। এছাড়া হাতি ও মানুষের দ্বন্ধ নিরসনে বন বিভাগের পক্ষ থেকে নানা ধরনের কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চেীধুরী বলেন, লাশ এখনো লামা সরকারি হাসপাতালে রয়েছে। লাশের প্রাথমিক সুরতহাল করার জন্য উপ-পরিদর্শক অলি আহাদকে পাঠানো হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল হোসাইন চৌধুরী বলেন, লাশটি ময়নাতদন্ত ছাড়া দাফন-কাফনের অনুমতি দিতে ওসিকে সুপারিশ করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: