ঢাকা,রোববার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১

দলীয় প্রার্থীর বিরোধী বাবলা পেতে চাই নৌকা, তৃণমূল আ.লীগে অসন্তোষ

বার্তা পরিবেশক :: তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলার পশ্চিম বড় ভেওলার ভোটগ্রহণ হবে ২৮নভেম্বর। এরই মধ্যে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছে একাধিক প্রার্থী। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে লবিং-এ ব্যস্ত পশ্চিম বড় ভেওলার বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা।

তিনি মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি। ২০১৪ সালের চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ছিলেন বর্তমান সংসদ সদস্য জাফর আলম। ওই সময় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রার্থী হয়েছিলেন সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা। ওই নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচন করেন তিনি।

পরে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ তাঁকে (বাবলা) ২০১৪ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি বহিষ্কার করতে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে সুপারিশ করেছিলেন। ওই নির্বাচনে ২হাজার ৩শ ৪৪ ভোটে পেয়ে ৫ম হন। ভোটে তিনি জামানত হারান। এরপর ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। গত রবিবার কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কাছে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন। ২০১৬ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা স্বেচ্ছাচারিতা, ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে পশুর হাট, নানা অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। গত কয়েক বছরে পশুর হাটটি অবৈধভাবে বসিয়ে কয়েক কোটি টাকা রাজস্ব হারিয়েছে সরকার। এছাড়াও তিনি নিয়মিত এলাকায় থাকতেন না।

বেশীভাগ সময় চট্টগ্রাম শহরে অবস্থান করতেন। এতে সেবাগ্রহীতারা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। এতে এবার সাধারণ ভোটাররাও তাঁর প্রতি বিমুখ হয়ে গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়নের একজন আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা ক্ষমতার অপব্যবহার করে যেমন দলকে এগোতে পারেনি। তেমনি ইউনিয়ন পরিষদকে একটি বাণিজ্যালয় বানিয়েছে। সেজন্য তৃণমূল আওয়ামী লীগ তাঁর পক্ষে নেই।

দলের প্রয়োজনে ভাবতে হবে কাকে মনোনয়ন দিলে নৌকা প্রতীকের জয়ী হবে। আরেক যুবলীগ নেতা বলেন, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা নিজের দাম্ভিক আচরণে কেউ কাছে যেতে পারে না। কিছু নিজস্ব লোক দিয়ে চলে তাঁর নানা কর্মকাণ্ড। তিনি ২০১৪ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে ভোট করেছিলেন। বিদ্রোহী নেতা কীভাবে ২০১৬ সালের নির্বাচনে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। দল এবার প্রার্থী দেখেশুনে দিবে বলে আশা করছি। ইতোমধ্যে দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিদ্রোহীদের নৌকার মনোনয়ন দিবে না বলে জানিয়েছে।

এ বিষয়ে পশ্চিম বড় ভেওলার বর্তমান চেয়ারম্যান ও তিনি মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলার মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার পরও সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকাই বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

পাঠকের মতামত:

 
error: Content is protected !!